Shadow

ব্যস্ত সময় কাটাচ্ছেন মৌসুমী

বিনোদন ডেস্ক : লাক্স-চ্যানেল আই সুপারস্টার হয়ে সবার নজড় কাড়েন অভিনেত্রী মৌসুমী হামিদ। ধীরে ধীরে উঠে আসেন। এখন মিডিয়াতে জায়গাটা একরকম পোক্ত করেছেন। কাজের প্রতি মনোযোগ তাকে দিচ্ছে সুনাম, খ্যাতি। সুসময় চলছে তার। নিয়মিত অভিনয়ের মাধ্যমে নিজেকে আলোচনার শীর্ষে বরাবরই ধরে রেখেছেন তিনি। বর্তমানে বেশ কিছু খণ্ডনাটকে অভিনয় নিয়ে ব্যস্ত সময় কাটাচ্ছেন মৌসুমী। সম্প্রতি কাজ শেষ করেছেন ‘অভিনেতা’, ‘স্বপ্ন’ ও ‘নূপুর’ নামের কয়েকটি নাটকের। অভিনয়ের পাশাপাশি বিজ্ঞাপন ব্যস্ততা তো রয়েছেই। সবমিলিয়ে বলা চলে মৌসুমটা এখন মৌসুমীরই। কাজের ক্ষেত্রে পেশাদারিত্ব বজার রাখেন জনপ্রিয় এ অভিনেত্রী। মৌসুমী বলেন, আমি সবসময় কাজে বিশ্বাসী। নিজের পেশাটাকে যথেষ্ট সম্মান করি। আর সেটা মাথায় নিয়েই পেশাদারিত্বের সঙ্গে কাজ করি। প্রসঙ্গত, ২০১০ সালে লাক্স-চ্যানেল আই সুপারস্টার প্রতিযোগিতার মধ্য দিয়ে রানার্সআপ হয়ে শোবিজে পথচলা শুরু করেন মৌসুমী। এরপর নিজের অভিনয় আর শরীরী সৌন্দর্য দিয়ে দর্শক মন জয় করতে শুরু করেন এ নায়িকা। শোবিজে পা রাখার পর প্রথমে খালিদ মাহমুদ মিঠুর ‘আমার মাতৃভাষা’ নাটকে অভিনয় করলেও তার প্রথম প্রচার হওয়া নাটক ছিল মোস্তফা কামাল রাজের ‘বিয়োগ ফল’। এরপর একে একে ‘নূরজাহান’, ‘অচেনা প্রতিবিম্ব’, ‘জলছবি’, ‘তবুও তো মা’ নাটকে অভিনয় করে মিডিয়ায় নিজের আগমনের জানান দেন। দুই বাংলার ধারাবাহিক ‘রোশনি’তে নাম ভূমিকায় অভিনয় করে দর্শকদের কাছে পরিচিতি পান মৌসুমী। এর মধ্যে আফসানা মিমির পরিচালনায় ‘সাতটি তারার তিমির’ ধারাবাহিকে অভিনয় করতে দেখা গেলেও পরে চলচ্চিত্রের ব্যস্ততার কারণে সেটা নিয়মিত চালিয়ে যেতে অপারগ হন জনপ্রিয় এ অভিনেত্রী। নাটক ও বিজ্ঞাপনে কাজ করে দর্শকপ্রিয়তা অর্জনের পর চলচ্চিত্রের নায়িকা হিসেবেও এখন ব্যস্ত মৌসুমী। বাণিজ্যিক ও ভিন্নধারার ছবিতে অভিনয় করে যাচ্ছেন নিয়মিত। এরই মধ্যে মুক্তি পেয়েছে তার অভিনীত ‘ব্ল্যাকমানি’ ও ‘জালালের গল্প’। মুক্তির অপেক্ষায় রয়েছে ‘পূর্ণ দৈর্ঘ্য প্রেম কাহিনী-২’। তবে চলচ্চিত্র ক্যারিয়ার যে ছবি দিয়ে শুরু হয়েছিল তার সেই অনিমেষ আইচের ‘না মানুষ’ ও প্রশান্ত অধিকারীর ‘হাডসনের বন্দুক’ এখনও মুক্তি পায়নি। ‘জালালের গল্প’ ছবিতে অভিনয়ের জন্য ভূয়সী প্রশংসা পেয়েছেন মৌসুমী। নিজের অভিনীত এ ছবি তার এতটাই ভালো লেগেছে, প্রেক্ষাগৃহে ১৬ বার দেখেছেন ছবিটি। কী আছে ছবিতে, এতটা মুগ্ধতা ছড়িয়েছে? মৌসুমী হামিদ বলেন, ছবির পুরো গল্পই মুগ্ধতা ছড়িয়ে রাখার মতো। বিশেষ করে সাঁতার না জেনেও নিজের নিশ্চিত মৃত্যু জেনে জালালের নদীতে ভেসে যাওয়া ছেলেটিকে বাঁচানোর প্রাণপণ চেষ্টা করার দৃশ্যটি আমার ভেতরে এখনও দাগ কাটে। ‘জালালের গল্প’র পরই মোশাররফ করিমের সঙ্গে ‘কয়লা’ নামের আরও একটি ছবিতে চুক্তিবদ্ধ হয়েছেন মৌসুমী। আগামী জুন-জুলাইয়ের মধ্যে শুটিং শুরু হতে পারে বলে জানিয়েছেন। নাটক এবং চলচ্চিত্র এ দুই মাধ্যমেই ব্যস্ত মৌসুম চলছে এ তারকার। বাণিজ্যিক ছবিতেই ক্যারিয়ার গড়তে ইচ্ছুক মৌসুমী।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *