লঞ্চ চলাচল বন্ধ-যাত্রী দূর্ভোগ চরমে যাত্রীবাহী লঞ্চ দায়ারা শিপিং লাইন্সে সন্ত্রাসী হামলা

রামগতি (লক্ষীপুর) প্রতিনিধি : ল²ীপুরের রামগতি আলেকজান্ডার টু দৌলতখা নৌ-রুটে চলাচলকারী দায়ারা শিপিং লাইন্সের এমভি রুহা রাদিদ লঞ্চের ম্যানেজার ও ষ্টাফদের মারধর এবং তাদের কাছ থেকে অর্থ লুটপাটের ঘটনার অভিযোগ পাওয়া গেছে।
মঙ্গলবার (৪ জানুয়ারী) সকালে ভোলা জেলার দৌলতখা লঞ্চঘাটে এ ঘটনা ঘটে।
এ ঘটনার প্রতিকার ও ন্যায় বিচারের দাবীতে মেসার্স দায়ারা শিপিং লাইন্সের স্বত্ত¡াধিকারী শাহ্ মোহাম্মদ রাকিব বাদী হয়ে পরিচালক নৌ-নিরাপত্তা ও ট্রাফিক বিভাগ, বিআইডবিøউটিএ, ঢাকা, স্থানীয় সাংসদ, বিআইডবিøউটিএ, ভোলা বন্দর ও পরিবহন কর্মকর্তা, স্থানীয় উপজেলা নির্বাহী অফিসার সহ স্বংশ্লিষ্ট দপ্তর সমূহে
অভিযোগ দায়ের করেন।
অভিযোগে উল্লেখ করেন, সরকারের নৌ-নিরাপত্তা ও ট্রাফিক বিভাগ এর অনুমতিপ্রাপ্ত হয়ে, রুটপারমিট ও সময়সূচী নিয়ে যাত্রী সাধারনের সুবিধার্থে আলেকজান্ডার- দৌলতখা রুটে এ লঞ্চটি চলাচল শুরু করে। এ রুটে দ্বীর্ঘদিন থেকে এমভি গেøারি অব দ্বীপাঞ্চল ও এমভি ইম্পেরিয়াল দুটি লঞ্চ চলাচল করে আসছে। মাসাধিককাল থেকে এমভি রুহা রাদিদ লঞ্চটি চলাচলের কারণে তারা চরমভাবে মনোক্ষুন্ন হয় এবং একচেটিয়া ব্যবসা করতে না পেরে তারা উভয় লঞ্চের মালিকরা মিলে ষ্টাফ ও বহিরাগত লোকজনকে দিয়ে এমভি রুহা রাদিদ লঞ্চটির ষ্টাফদের উপর হামলা চালায়। তাদের বেধড়ক মারধরের কারণে লঞ্চের ম্যানেজারের চোখ, মুখ ও শরীরের বিভিন্ন অংশে রক্তাক্ত ও ফুলা জখম করে। এ সময় তার সাথে থাকা ১৫/১৬ হাজার টাকা ছিনাইয়া নিয়া যায়। অপরাপর ষ্টাফরা তাদের মারধরের শিকার হয়। পরবর্তিতে তারা ম্যানেজারকে উদ্ধার করে স্থানীয় ক্লিনিকে প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হয়।
এ ঘটনার সময় ঘাটের ইজারাদার উপস্থিত ছিলেন। এ ঘটনা ঘটার পর বর্তমানে যাত্রী
পরিবহন বন্ধ রয়েছে। এতে করে শত শত যাত্রীরা পড়েছে চরমে দূর্ভোগে।
এ বিষয়ে মেসার্স দায়ারা শিপিং লাইন্সের স্বত্ত¡াধিকারী শাহ্ মোহাম্মদ রাকিব বলেন,
আমি নিয়মের বাইরে নই। আমার ষ্টাফদের অন্যায়ভাবে মারধর করা হয়েছে। আমি ন্যয় বিচার
চাই।

আরও পড়ুন

Wednesday, May 18, 2022

সর্বশেষ