মাননীয় প্রধানমন্ত্রী বরাবরে মুক্তিযোদ্ধা নাজিম উদ্দিনের খোলা চিঠি ।

মাননীয়,
সভানেত্রী বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ

প্রধানমন্ত্রী
গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার।

বিষয়ঃ লক্ষ্মীপুর জেলার কমলনগর উপজেলার ২নং সাহেবের হাট ইউনিয়নের আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ
নির্বাচনকে কেন্দ্র করে আবদুর রহমান দিদার, পিতা- মৃত আবদুল গফুর তহশিলদার এর বিরুদ্ধে
অভিযোগ ।

জনাব,
বিনীত নিবেদন এই যে, আমরা লক্ষ্মীপুর জেলাধীন কমলনগর উপজেলার ২নং সাহেবের হাট ইউনিয়ন সহ বিভিন্ন ইউনিয়নের মহান স্বাধীনতা যুদ্ধে অংশগ্রহণকারী মুক্তিযোদ্ধা আওয়ামীলীগ ও স্বাধীনতার পক্ষের লোকজন বিগত কিছু দিন দরে লক্ষ্য করিয়া আসিতেছি যে, বিষয়ে উল্লেখিত আবদুর রহমান দিদার নামের লোকটি স্বাধীনতা বিরুদ্ধে সংগঠন জাতীয়তাবাদী ছাত্রদল এ থাকা অবস্থায় বিগত বিএনপি সরকারের আমলে সেনাবাহিনীতে যোগদান করে ও বর্তমানে নিজেকে সেনাবাহিনীর অবসর প্রাপ্ত সদস্য পরিচয় দিয়ে এলাকায় এসে চেয়ারম্যান প্রার্থী হওয়ার জন্য তৎপরতা চালাচ্ছে এবং বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের সদস্য হয়। এই আবদুর রহমান দিদারের পিতা মৃত হাজী আবদুল গফুর তহশিলদার মহান স্বাধীনতা যুদ্ধের সময় একজন প্রভাবশালী শান্তি কমিটির সদস্য ছিলেন ও তার চাচা আবদুল হালিমও রাজাকার ছিল। আবদুল হালিম এখন জীবিত আছেন। এই আবদুর রহমান দিদারের পিতা রাজাকারদের সহযোগিতা করে এলাকার কয়েকটি নিরীহ লোককে হত্যা করে যেমন ভারতের ট্রেনিং প্রাপ্ত মুক্তিযোদ্ধা মোঃ নাজিম উদ্দিন ও মুক্তিযোদ্ধা সাহাব উদ্দিনের পিতা সহিদ আঃ রাজ্জাককে গফুর তহশিলদারের নেত্রীত্বে হাজিরহাট রাজাকার ক্যাম্পে এনে গুলি করে হত্যা করেন আরও বহু বাড়ী ঘর পুড়ে ফেলেন। নিজে বিএনপি পন্থী বাবা, চাচা স্বাধীনতা বিরুদ্ধে হওয়া স্বর্ত্বেও উক্ত আবদুর রহমান দিদার কিসের বলে, কাহার বলে এতো তোড়জোড় করে এমনকি সে এই কথাও এলাকায় বলে বেড়ায় যে নির্বাচন কি করে করতে হয় আমি জানি। অস্ত্র জমা দিয়ে এসেছি ট্রেনিং জমা তো জমা দেই নাই।

এমতাবস্থায় আমরা অত্র এলাকার মুক্তিযোদ্ধা আওয়ামীল ও স্বাধীনতা পক্ষের লোকজন বিষয়টি আপনার সদয় অবগতির ও প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য আবেদন করছি।

বিনীত নিবেদক
মোঃ নাজিম উদ্দিন
চর জগবন্ধু

আরও পড়ুন

Wednesday, September 22, 2021

সর্বশেষ