জয় দিয়েই শুরু বাংলাদেশের টি২০ বিশ্বকাপ

স্পোর্টস ডেস্ক :

টি২০ বিশ্বকাপ ক্রিকেটে নেদারল্যান্ডসকে ৯ রানে হারিয়ে শুভ সূচনা করেছে বাংলাদেশ।

আজ বুধবার (৯ মার্চ) বাছাই পর্বে ( প্রথম রাউন্ডে) মুখোমুখি হয়েছিল দুই দল। বল হাতে বাংলাদেশকে প্রথম সাফল্য উপহার দিয়েছিলেন পেসার আল-আমিন হোসেন। ডাচদের দলীয় ২১ রানে তাদের ওপেনার ওয়েসলি বারেসিকে সাব্বিরের ক্যাচে পরিণত করেছেন আল-আমিন। তবে ডাচদের আরেক স্টিফেন মাইবার্গ বিপদজনক হয়ে উঠছিলেন বাংলাদেশের জন্যে। তবে নবম ওভারের প্রথম বলে তাকে বোল্ড আউট করে বাংলাদেশ শিবিরে স্বস্তি ফিরিয়েছেন নাসির হোসেন। আর ১১.২ ওভারে বেন কুপারকে বোল্ড করে বাংলাদেশকে তৃতীয় সাফল্য দিয়েছেন সাকিব আল হাসান। এরপর দুই ডাচ ব্যাটসম্যান টম কুপার ও পিটার বোরেন বাংলাদেশ শিবিরে শঙ্কা জাগিয়ে তুলেছিলেন। তবে ১৬তম ওভারের শেষ বলে বোরেনকে নাসিরের ক্যাচে পরিণত করে আপাতত বাংলাদেশ শিবিরে স্বস্তি ফিরিয়েছেন সাকিব। এর পরের ওভারেই ভ্যান ডার মারউইকে কট বিহাউন্ড করে বাংলাদেশকে উল্লাসে মাতিয়েছেন অধিনায়ক মাশরাফি।

বুধবার বেলা সাড়ে ৩টায় ভারতের ধর্মশালায় মুখোমুখি হয়েছে দুই দল। ম্যাচে টসে হেরে ব্যাটিংয়ে নামে বাংলাদেশ। দলীয় ১৮ রানে প্রথম উইকেট হারায় মাশরাফিবাহিনী। আউট হয়েছিলেন সৌম্য সরকার। এরপর উইকেটের ওই প্রান্তে কেবলই যাওয়া-আসার মিছিলে শামিল হয়েছেন বাংলাদেশের ব্যাটসম্যানরা। তবে অপর প্রান্তে সাবলীল ছিলেন ওপেনার তামিম ইকবাল। ইনিংস ওপেন করতে নেমে শেষ পর্যন্ত ৫৮ বলে ৮৩ রান করে অপরাজিত থেকেছেন তিনি। তার ইনিংসে ছিল ৬টি বাউন্ডারি ও ৩ ছক্কা। মূলত তামিমের এই একক বীরত্বেই নেদারল্যান্ডসের বিপক্ষে লড়াই করার মতো পুঁজি পেয়েছে বাংলাদেশ। নির্ধারিত ২০ ওভারে ১৫৩ রান তুলতে মাশরাফির দল হারিয়েছে ৭ উইকেট।

নেদারল্যান্ডসের পক্ষে পেসার ভ্যান ডার গাগটেন নিয়েছেন ৩ উইকেট। এ ছাড়া ২ উইকেট নিয়েছেন আরেক পেসার পল ভ্যান মিকেরেন।

বাংলাদেশের হয়ে ব্যাটিং ওপেন করেছিলেন তামিম ইকবাল ও সৌম্য সরকার। দলীয় ১৮ রানে (ব্যক্তিগত ১৫ রানে) আউট হন সৌম্য সরকার। ৮ ওভার শেষে বাংলাদেশের সংগ্রহ ছিল ১ উইকেটে ৫৩ রান। তবে ৯ ওভারেই সেই স্কোর হয়ে যায় ২ উইকেটে ৬২ রান। এলবিডব্লিউ আউট হয়ে সাজঘরে ফিরতে হয়েছে সাব্বিরকে; ব্যক্তিগত ১৫ রানে।

তামিম-সাব্বির জুটিতে বাংলাদেশের ভাণ্ডারে জমা পড়েছে ৪২ রান।

সাব্বির আউট হওয়ার পর ক্রিজে এসেছিলেন সাকিব আল হাসান। তবে খুব বেশি দূর এগোতে পারেননি তিনি। দলীয় ৭৮ রানে ক্যাচ আউট হয়েছেন সাকিব। এরপর ইনিংসের ১৪তম ওভারে ৩ বলের ব্যবধানে আউট হয়েছেন মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ ও মুশফিকুর রহিম। বাংলাদেশের সংগ্রহ তখন ৫ উইকেট হারিয়ে ১১২ রান। দলীয় ১২৭ রানে ষষ্ঠ উইকেট হিসেবে বিদায় নেন নাসির হোসেন। এরপর ১৩৭ রানে সাজঘরের পথ ধরেন অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজাও। এরপর শেষ ৭ বলে ১৩ রান তুলে বাংলাদেশের সংগ্রহকে ১৫৩ পর্যন্ত টেনে নিয়েছেন তামিম ও আরাফাত সানি জুটি। ৪ বলে ৮ রান করে (এক ছক্কাসহ) অপরাজিত ছিলেন সানি।

বিশ্বকাপের মূল পর্বে কোয়ালিফাই করার জন্য বাছাই পর্বের খেলায় গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হতে হবে বাংলাদেশকে। সেই লক্ষ্যেই প্রথম ম্যাচে নেদারল্যান্ডসের মুখোমুখি মাশরাফিবাহিনী। এই গ্রুপে (‘এ’ গ্রুপ) বাংলাদেশ ও নেদারল্যান্ডস ছাড়াও রয়েছে আয়ারল্যান্ড ও ওমান। ম্যাচে ৩ পেসার নিয়ে খেলতে নেমেছে বাংলাদেশ। ইনজুরির কারণে ম্যাচে খেলতে পারছেন না তরুণ পেসার মুস্তাফিজুর রহমান। পেস আক্রমণে তাই থাকছেন অধিনায়ক মাশরাফি, তাসকিন আহমেদ ও আল-আমিন হোসেন। এ ছাড়া স্পিনার হিসেবে দলে জায়গা পেয়েছেন আরাফাত সানি।

আরও পড়ুন

Wednesday, September 22, 2021

সর্বশেষ