ভোলায় মক্ষীরাণী আলো বেগমের দেহব্যবসা চলছে প্রভাবশালী ব্যক্তির ছত্রছায়ায়

মীর মোহাম্মদ গিয়াস উদ্দিন ॥ ভোলায় বিশেষ রাজনৈতিক প্রভাবশালী ব্যক্তির ছত্রছায়ায় চলছে বিতর্কিত নারী আলো বেগমের দেহব্যবসা। রাজনৈতিক ব্যক্তিদের পরোক্ষ সহযোগীতায় প্রতিদিন সকাল থেকে শুরু করে গভীর রাত পর্যন্ত এ দেহব্যবসা চলছে। আবার অনেকে সারা রাত থেকে ভোর রাত পর্যন্ত ওই বাসায় অবস্থান করে মনোরঞ্জনে ব্যস্ত থাকে। এভাবে দিনের পর দিন আলো বেগমের দেহ ব্যবসায় এক শ্রেণির বিপদগামী যুবসমাজ দাবিত হচ্ছে।
অনুসন্ধানে জানাগেছে, ভোলা সরকারি কলেজের সামনে একটি বাসা ভাড়া নিয়ে দেহব্যবসা পরিচালনা করছে দক্ষিণ দিঘলদী ইউনিয়নের সেলিম দালালের স্ত্রী আলো বেগম। তিনি সমাজে মক্ষীরাণী নামে পরিচিত। আলো বেগম ইতিপূর্বে বিভিন্ন জায়গায় ভাসমান থেকে দেহব্যবসা পরিচালনা করে আসলেও বর্তমানে ভোলা সরকারি কলেজের সামনে একটি বাসায় আস্তানা তৈরী করে সেখানে প্রতিনিয়ত দেহব্যবসা চালাচ্ছেন নির্বিগ্নে। বাসায় দুটি কম বয়সের তরুণী রেখে দেহ ব্যবসা করছে। আলো বেগমের অপকর্মের বিরুদ্ধে কেউ ভয়ে প্রতিবাদ করতে সাহস পাচ্ছে না। আবার কেউ প্রতিবাদ করতে গেলে ক্ষমতাসীন দলের প্রভাবশালী ব্যক্তির নাম ব্যবহার করছে। ফলে ভয়ে আর কেউ প্রতিবাদ করতে পারছে না।
এদিকে গত কয়েকদিন পূর্বে ওই বাসায় গিয়ে সাংবাদিকরা দেখতে পান আলো বেগমের দেহব্যবসার স্ব-চিত্র। সাংবাদিকদের দেখে কোন রকম বিচলিত হয়নি আলো বেগম। বরং সাংবাদিকদের সামনেই বর্তমান ক্ষমতাসীন দলের বেশ কয়েকজন প্রভাবশালী নেতাকে টেলিফোন করতে দেখা গেছে আলো বেগমকে। আলো বেগমের বাসায় যে দুটি তরুনী রেখে ব্যবসা চালাচ্ছে তাদের বয়স ১২ থেকে ১৪ বছর। মাঝে মধ্যে বিভিন্ন বয়সের যুবতি নারী এনে হাজির করেন আলো বেগম। তাদেরকে দিয়েই আলো বেগম দেহ ব্যবসা করছে। অপর দিকে মক্ষীরানী আলো বেগম ও তার স্বামী মো: সেলিম দালাল প্রকাশ্যে অনৈতিক ব্যবসা পরিচালনা করে আসলেও তাদের বিরুদ্ধে প্রশাসন কোন ব্যবস্থা নিচ্ছে না। বরং আলো বেগম দম্বোক্তির সাথে হুমকার দিয়ে বলেন, ভোলার রাজনৈতিক প্রভাবশালী ব্যক্তি ও প্রশাসন আমার হাতের মুঠোয়। তাই আমার বিরুদ্ধে কেউ কিছু করতে পারবে না। দেহ ব্যবসায়ী আলো বেগমের বিরুদ্ধে জরুরী ভাবে ব্যবস্থা না নিলে ভোলার যুব সমাজ দিন দিন ধবংসের দিকে ধাবিত হবে। তাই তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার  জন্য প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করছেন সচেতন নাগরিক মহল। এ ব্যাপারে ভোলা থানার ওসি  মীর খায়রুল কবির জানান, তিনি এ জাতীয় ঘটনার খবর শুনেননি। তবে এখন থেকে খোজ খবর নেওয়া হবে। সমাজ বিরোধী অপকর্মের বিরুদ্ধে পুলিশের অভিযান অব্যাহত থাকবে।

আরও পড়ুন

Tuesday, October 19, 2021

সর্বশেষ