কপিলমুনি কোটি টাকার সরকারি সম্পত্তি প্রভাবশালীর দখলে

মহানন্দ অধিকারী মিন্টু; পাইকগাছা, খুলনা : খুলনার দ্বিতীয় বৃহত্তম বাণিজ্যিক উপশহর পাইকগাছার কপিলমুনি কোটি কোটি টাকার সরকারি সম্পত্তি প্রভাবশালীরা দখলে চলে যাচ্ছে। প্রভাবশালীরা সরকারি সম্পত্তিতে উপজেলা প্রশাসনকে ম্যানেজ করে আর সিসি (ঢালাই) পিলার দিয়ে পাকা ইমারত নির্মাণ করছে। আইনের চোখ ফাঁকি দিয়ে অবৈধ ভাবে ডিসি আর নেওয়ার অভিযোগ উঠেছে। আর প্রকাশ্যে দিবালোকে সরকারি সম্পত্তির উপর একের পর এক বহুতল ভবন নির্মাণ করা হচ্ছে। প্রভাবশালীদের কর্মকান্ড ও দম্ভক্তি দেখে বাজারের সাধারণ ব্যবসায়ীরা হতবাক হয়ে পড়েছে।

সরেজমিনে দেখা যায়, জেলার পাইকগাছায় ঐতিহ্যবাহী রায় সাহেব বিনোদ বিহারী সাধু প্রতিষ্ঠিত কপিলমুনি (বিনোদগঞ্জ) বাজারের পেরীফেরী ভূক্ত সরকারি সম্পত্তিতে স্থানীয় ব্যবসায়ী ও দুর-দুরান্ত থেকে আগন্তুক ব্যবসায়ীদের সুবিধার্থে নির্মিত চাঁদনী গুলো অবৈধভাবে দখল দিয়ে ইটের প্রাচীর ও লোহার তৈরী সাটার নির্মাণ করে স্থায়ী জবর দখলের হিড়িক পড়েছে। যে যার মত করে প্রকাশ্যে দিবালোকে ও রাতের আধারে সেখানে বহুতল ভবন নির্মাণের প্রক্রিয়ায় কাজ চালিয়ে যাচ্ছে। এমন কি জন সাধারণের চলাচলের জন্য নির্মিত ফুটপাত দখল করে রেখেছে। ফলে আগন্তুক ব্যবসায়ীদের মালামাল ক্রয়-বিক্রয়ে চরম ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে তাদের। বর্তমানে কপিলমুনি বাজার অভিভাবক শূন্য হয়ে পড়ায় একটি মহল স্থানীয় কিছু ব্যক্তিকে ও উপজেলা প্রশাসনকে ম্যানেজ করে কাজ চালিয়ে যাচ্ছে বলে অনেকেই দাবী করেছে। দেখাযায় পেরীফেরী ভূক্ত সরকারী সম্পত্তিতে একটি টিন সেডের ছাউনী কৃত দোকানঘর ভেঙ্গে সেখানে টিনের বেষ্টনি দিয়ে তার অভ্যান্তরে ১০/১২ টি বহুতল দোকান ঘর নির্মাণ শুরু করেছে নুরজ্জামান গং। জানাযায় কাজ শুরুর এক পর্যায় স্থানীয় ভূমি অফিসের তহশীলদার উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের নির্দেশে দু’দুবার কাজ বন্ধ করে দেয়। কিন্তু পরবর্তীতে নুরুজ্জামান গং উপজেলা প্রশাসনকে ম্যানেজ করে তাদের পরিবারের সদস্যদের ব্যবসায়ী সাজিয়ে একাধিক নামে ডিসি আর নিয়ে পূণরায় বহুতল দোকান ঘর নির্মাণ কাজ চালিয়ে যাচ্ছে।
এ প্রসঙ্গে কপিলমুনি ভূমি অফিসের তহশিলদার আবু বক্কর সিদ্দিকী জানান, অবৈধ ভাবে সরকারি সম্পত্তিতে দোকান ঘর নির্মাণের কাজ কয়েক বার বন্ধ করে দিয়ে ছিলাম। পরবর্তীতে তারা কিভাবে আবার ও কাজ চালিয়ে যাচ্ছে এটা আমার বোধগম্য নয়। পাইকগাছা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নাহিদ-উল-মোস্তাক বলেন, বিষয়টি আমি দেখবো। পেরী ভূক্ত সম্পত্তিতে কোনো প্রকার রডের ঢালাইকৃত পিলার ও বহুতল ভবন করা যাবে না। সংসদ সদস্য অ্যাড. শেখ মোঃ নুরুল হক বলেন, বাজারের সার্বিক উন্নয়নের স্বার্থে আমি সকলের সহযোগীতা কামনা করি। কপিলমুনি বাজারকে ডিজিটাল শহরে রূপান্তরিত করতে আমি চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি। সরকারি সম্পত্তি কেউ অবৈধ ভাবে দখল করে রাখতে পারবে না।

আরও পড়ুন

Tuesday, October 19, 2021

সর্বশেষ