দৌলতখানে বিএনপি অফিসে ছাত্রলীগের হামলা-ভাংচুর: আহত ২০

ভোলা প্রতিনিধি : ভোলার দৌলতখানে শনিবার রাত ৭টায় উপজেলা বিএনপি অফিসে হামলা চালিয়ে ব্যাপক ভাংচুর ও নেতাকর্মীদের মারধর করেছে ছাত্রলীগের কর্মীরা। এতে আহত হন বিএনপি সহসভাপতি সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান ফারুক তালুকদারসহ ২০ জন। দৌলতখান থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা জানান, ঘটনার খবর পেয়ে তারা ওই এলাকায় যান। অফিসে বিএনপির কাউকে পাওয়া যায়নি। তবে অফিসের আসবাবপত্র ভাংচুর অবস্থায় রয়েছে। ফারুক তালুকদার জানান, সন্ধ্যায় পার্টি অফিস খুলে টিভিতে খবর দেখছিলেন তিনিসহ ২৫-৩০ জন। এ সময় উপজেলা ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক সুমন, পৌর ছাত্রলীগের সভাপতি মনজুর আহমেদ, নুরুল ইসলামসহ ২০-২৫ জন এসে প্রথমে উপজেলা বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক ফখরুল আলম টফি আছে কিনা জানতে চায়। এর পরেই টফি উপস্থিত নেই জেনেই চেয়ার- টেবিল ভাংচুর করতে শুরু করে। টিভি ভেঙে ফেলে। অফিসে থাকা নেতাকর্মী ও সাধারণ মানুষদের মারধর করতে থাকে। বিনা কারণে এমন ঘটনায় হতবাক হন উপস্থিত সবাই।  অপরদিকে উপজেলা আওয়ামীলীগের এক নেতা জানান, ছাত্রলীগের কিছু উচ্ছৃংখল কর্মীর এমন ঘটনায় তারাও হতবাক হয়েছেন। অন্যদিকে উপজেলা ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক সুমন জানান, এমন কোনো ঘটনাই ঘটেনি। উপজেলা চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি মনজুর আলম খান জানান, তাদের কোনো নেতাকর্মী এমন কাজ করার কথা নয়। এদিকে ছাত্রলীগদের হামলা- ভাংচুরের ঘটনায় তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদের ঝড় উঠেছে দৌলতখানের সর্বত্র। এই ঘটনায় তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন তারেক রহমান আন্তর্জাতিক পরিষদ (ইউএসএ) সভাপতি ও ভোলা জেলা বিএনপির সহ-শিল্প বিষয়ক সম্পাদক জাহাঙ্গীর এম আলম।

আরও পড়ুন

Tuesday, October 19, 2021

সর্বশেষ