ভোলায় অটোরিক্সার দূর্ঘটনা ব্যাপক বৃদ্ধি পাওয়ায় শঙ্কিত যাত্রীরা ।

ভোলা প্রতিনিধি : ভোলায় ব্যাপক হারে বৃদ্ধি পাচ্ছে অটোরিক্সা ও ইজি বাইকের দূর্ঘটনা। এতে বিভিন্ন সড়কে চলাচলকারী যাত্রীরা শঙ্কিত হয়ে পড়েছে। অটোরিক্সার উপর নির্ভর হয়ে অনেক নতুন ও অদক্ষ চালক দ্বারা চালানোর কারণে দিন দিন অটোরিক্সার দূর্ঘটনা বৃদ্ধি পাচ্ছে। খোজ নিয়ে জানা গেছে, ভোলার আঞ্চলিক সড়ক ও  বিভিন্ন উপজেলার প্রত্যন্ত অঞ্চলের সড়কগুলোকে অটোরিক্সা ও ইজিবাইক চলাচল করছে। সহজ উপায়ের জন্য যাত্রীরাও এসব যানবাহনের প্রতি নির্ভরশীল হয়ে পড়েছে। এসব যানবাহনের চালকরা প্রশিক্ষণ প্রাপ্ততো নয়ই, বরং সরকারের নিয়মনীতিকেও বৃদ্ধাঙ্গুলী দেখাচ্ছে। ফলে দিন দিন সড়ক দূর্ঘটনা বেড়েই চলেছে। এসব যানবাহনে চলাচল করতে গিয়ে বহু নারী-পুরুষ ও শিশুসহ শত শত যাত্রী আহত ও নিহত হয়েছে। প্রশাসনও এদের বিরুদ্ধে সুনিদৃষ্ট ভাবে চলাচলের জন্য তাগিদ দিচ্ছে না। তাই সড়ক দূর্ঘটনায় প্রাণ ঝড়ছে অহর অহর। গত ১ ফেব্রুয়ারী ১৭ইং তারিখে সকাল সারে নয়টার সময় ভোলা সদর উপজেলার উত্তর দিঘলদী ইউনিয়নের জমদার বাড়ীর সামনে একটি অটোরিক্সা উল্টে গিয়ে কলেজ ছাত্রীসহ  ৫ জন যাত্রী গুরুতর আহত হয়ে ভোলা সদর হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য ভর্তি হয়। এতে উত্তর দিঘলদী ইউনিয়নের মজিবরের ছেলে সহিদুল শরীরের বিভিন্ন জায়গায় মারাত্মক আহত হয়। এখন পর্যন্ত সে ভোলা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে। এভাবে প্রতিনিয়ত একের পর এক অটোরিক্সার দূর্ঘটনা ঘটলেও এসব ঘটনার তদন্ত কিংবা ব্যবস্থা কোনটাই নেয়া হয়নি। তাই সাধারন যাত্রীরা অটোরিক্সা চালানোর জন্য প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত চালক বাধ্যতামূলক হওয়া উচিত বলে মনে করেন। এজন্য এ বিষয়ে পদক্ষেপ নেওয়ার জন্য পথযাত্রীরা স্থানীয় প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করছেন ।

আরও পড়ুন

Wednesday, December 8, 2021

সর্বশেষ