মামলার ভয়ে আতংকিত মনপুরার ব্যবসায়ীরা

ভোলা প্রতিনিধি ॥ ভোলার মনপুরায় ব্যবসায়ী ও পুলিশের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনায় সেখানে এখন গ্রেফতারী আতঙ্ক বিরাজ করছে। তবে উভয় পক্ষের সমঝোতায় ব্যবসায়ীরা অনির্দিষ্টকালের ধর্মঘট প্রত্যাহার করে নেয়, তবুও তাদের মধ্যে গ্রেফতারী আতঙ্ক বিরাজ করছে। যদিও তারা গতকাল বৃহস্পতিবার দোকান-পাট খুলেছে, তথাপিও পুলিশি মামলার ভয় কাটেনি। এছাড়ও হাসপাতালে ভর্তি ৩৪ গুলিবিদ্ধ ব্যবসায়ী পুলিশের ভয়ে হাসপাতাল ছেড়ে গোপনে চিকিৎসা নিচ্ছেন। এদের মধ্যে অনেকে আবার পুলিশের ভয়ে মনপুরা ছেড়ে অন্যত্র চলে গেছেন বলে জানান আহত ব্যবসায়ীদের স্বজনরা।
ব্যবসায়ীরা জানান, শুনেছি পুলিশ মামলা করেছে। দোকান খুললেও মামলা আতংকে আছি। ব্যবসায়ীদের যাতে পুলিশ মামলায় না জড়ানো হয় এমন দাবী করেন হাজিরহাট বাজারের ব্যবসায়ীরা।
বাজার ব্যবসায়ী সমিতির সম্পাদক মোঃ মহিউদ্দিন জানান, ব্যবসায়ীরা আমার কাছে এসে জানতে চায় পুলিশ মামলা করেছে; নাকি করবে ? ব্যবসায়ীদের মধ্যে এখন আতংক বিরাজ করছে। তবে সহকারি পুলিশ সুপার (লালমোহন সার্কেল) ব্যবসায়ীদের হয়রানী ও প্রেফতার করা হবে না বলে আশ্বস্ত করেন।
এ ব্যাপারে মনপুরা থানার দায়িত্বে থাকা এসআই হাদিস জানান, গুরুত্বর অসুস্থ্য ওসি শাহীন খানের অবস্থার অবনতি হলে তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকায় প্রেরণ করা হয়েছে। এছাড়া মামলা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে বলেও তিনি জানান।
এ ব্যাপারে ভোলা জেলা পুলিশ সুপার মোহাম্মদ মোক্তার হোসেন সাংবাদিকদের জানান, মনপুরা থানা ওসিকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকা নেওয়া হয়েছে। ঘটনার তদন্ত করে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে। তিনি আরো বলেন, পুলিশের ওপর হামলায় পুলিশ বাদী হয়ে অজ্ঞাতনামা প্রায় ২ শতাধিকেরও অধিক লোককে আসামী করে বুধবার রাতেই মনপুরা থানায় পুলিশ এসল্টের ঘটনায় একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। সেখানে পরিস্থিতি এখন শান্ত রয়েছে বলেও জানান তিনি।
উল্লেখ্য, গত ২২ ফেব্রুয়ারী ভোলার মনপুরায় ব্যবসায়ীদের সাথে পুলিশের সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এতে সাংবাদিক, ব্যবসায়ী ও পুলিশসহ অন্তত অর্ধশতাধিক লোক আহত হয়।

আরও পড়ুন

Sunday, November 28, 2021

সর্বশেষ