শেখ হাসিনার অধিনেই ২০১৯ সালে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে : বাণিজ্যমন্ত্রী

ভোলা প্রতিনিধি ॥ বাণিজ্য মন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ বলেছেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সরকারের অধিনে আগামী ২০১৯ সালের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। ওই নির্বাচনে বিএনপি অংশগ্রহণ করবে। এসময় মন্ত্রী আগামী নির্বাচনে নৌকা প্রতীককে পুনরায় নির্বাচিত করার জন্য ভোট চান এবং দলীয়  নেতা-কর্মীদের এখন থেকে মাঠে নৌকার পক্ষে কাজ করার জন্য আহবান জানান। গতকাল বৃহস্পতিবার বিকেলে ভোলার লালমোহন শাহবাজপুর সরকারি কলেজ মাঠে বাংলাদেশের প্রথম তথ্য-প্রযুক্তি সংবলিত ‘সজীব ওয়াজেদ জয় ডিজিটাল পার্ক’ এর উদ্বোধন শেষে এক সমাবেশে তিনি এসব কথা বলেন।
তিনি আরো বলেন, বর্তমানে এদেশ ডিজিটাল বাংলাদেশে রূপান্তর হয়েছে। ২০২১ সালে স্বাধীনতার ৫০ বছর পূর্তিতে বাংলাদেশ একটি উন্নত মধ্যম আয়ের দেশে পরিণত হবে। বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা প্রতিষ্ঠায় কাজ করছেন প্রধানমন্ত্রী।
মন্ত্রী বলেন, বিএনপি সরকারের আমলে ভোলায় কোনো উন্নয়ন হয়নি, হয়েছে লুটপাট আর আওয়ামী লীগ দমনের রাজনীতি। তাদের কারণে কোনো নেতাকর্মী এলাকায় থাকতে পারেনি। এমনকি আমার গাড়ির ওপরও হামলা চালানো হয়েছে। ২০০১ সালের নির্বাচনে ভোলা-৩ আসন থেকে প্রতিপক্ষ মেজর হাফিজের চেয়ে ১৭ হাজার ভোট বেশি পাওয়ার পরও ষড়যন্ত্রমূলক ভাবে আমাকে হারানো হয়েছে জানান বাণিজ্যমন্ত্রী।
তিনি আরো বলেন, বঙ্গবন্ধুর জন্ম না হলে বাংলাদেশ স্বাধীন হতো না। বঙ্গবন্ধু যে স্বপ্ন দেখিয়েছিলেন তা বাস্তবায়নে কাজ করছেন প্রধানমন্ত্রী। দেশের গ্রামগুলোর অনেক উন্নয়ন হয়েছে, বিদ্যুৎ, রাস্তাঘাটসহ মানুষের জীবনযাত্রার মানের উন্নয়ন হয়েছে। আমরা হবো জয়ী, আমরা দুর্বার, ডিজিটাল বাংলাদেশ বিনির্মাণে হবে হাতিয়ার- এ স্লোগানকে সামনে রেখে এ মেলা চলছে।
ভোলা-৩ আসনের সংসদ সদস্য নুরুন্নবী চৌধুরী শাওনের সভাপতিত্বে ‘সজীব ওয়াজেদ জয় ডিজিটাল পার্ক’-এর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন- চিফ হুইপ আ.স.ম ফিরোজ, তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক, বিদ্যুৎ, জ্বালানী ও খনিজসম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ, সংসদ সদস্য নাইমুর রহমান দুর্জয়, ডা. হাবিব এ মিল্লাত এমপি, নজরুল ইসলাম বাবু এমপি, সফিকুল ইসলাম শিমুল এমপি, সানজিদা খানুম এমপি, মাহফুজুর রহমান মিতা এমপি, আনোয়ার হোসেন এমপি, আনোয়ারুল আবদিন তুহিন এমপি, নজিব মোহাম্মদ ফখরুল এমপি, নাহিম রাজ্জাক এমপি, ফাহিম গোলদার পাবেল এমপি, মো. আইন উদ্দিন এমপি, অনুপম শাহজান জয় এমপি, আলী আজম মুকুল, মমতাজ বেগম এমপি, জেলা প্রশাসক মোহাং সেলিম উদ্দিন, পুলিশ সুপার মোকতার হোসেন প্রমুখ।
এর আগে লালমোহন উপজেলা আওয়ামীলীগের দলীয় কার্যলয় উদ্বোধন ও বালক মাধ্যমিক বিদ্যালয় মাঠে লার্নিং এন্ড আর্নিং মেলা উদ্বোধনী, আলোচনা সভা এবং সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে তোফায়েল আহমেদ ল্যাপটপ ও আইটি সনদ প্রদান করেন। মেলায় তথ্য প্রযুক্তি নির্ভর অর্ধশতাধিক স্টল রয়েছে। মেলায় ভ্রাম্যমাণ ডিজিটাল বাস প্রদর্শন করা হয়।
‘সজীব ওয়াজেদ জয় ডিজিটাল পার্কটি অত্যন্ত সুন্দর ও মনোরম পরিবেশে নির্মাণ করা হয়েছে। এখান থেকে সরকারি-বেসরকারি শতাধিক সেবা পাওয়া যাবে। এখানে রয়েছে বাংলাদেশের সর্ববৃহৎ ৪০ ফুট বাই ৩০ ফুট ডিজিটাল এলইডি টিভি। যার মাধ্যমে সকল প্রকার খেলাধুলাসহ অন্যান্য সামাজিক সচেতনতামূলক অনুষ্ঠান দেখা যাবে। পার্ক জুরে দেয়া হয়েছে ফ্রি ওয়াইফাই। এছাড়া শান্তির প্রতীক নৌকার বিশাল এক আলোকিত প্রতিকৃতিসহ ডিজিটাল বিনোদনের আকর্ষণীয় আরও অনেক কিছুর ব্যস্থা রয়েছে।

আরও পড়ুন

Sunday, November 28, 2021

সর্বশেষ