কমলনগরে ৪টি বিয়ের পরেও ক্ষান্ত হয়নি মোছলেহ উদ্দিনের অপকর্ম

মোখলেছুর রহমান ধনু :লক্ষ্মীপুর জেলার কমলনগর উপজেলার চর লরেঞ্চ ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ডের আবদুল মতিনের বাড়ীর মতিনের ছেলে মোছলেহ উদ্দিন ৪টি বিয়ে করার পরেও বন্ধ হয়নি তার অপকর্ম। মোছলেহ উদ্দিনের ৪র্থ স্ত্রী নুর নাহার প্রকাশ রুনা বেগমকে গত ৬ মে পারিবারিক কলহকে কেন্দ্র করে রুনা বেগমকে এলোপাতাড়ি বেদম মারধর করার অভিযোগ পাওয়া যায়। রুনা বেগম ১সন্তানের জননী বর্তমানে সে কমলনগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন অবস্থায় আছে।
অনুসন্ধানে জানা যায়, মোছলেহ উদ্দিন ১ম বিয়ে করে ভবানিগঞ্জ এলাকার বকুল বেগমকে তাদের সংসারে ১টি মেয়ে সন্তানের জন্ম হয়। শারিরিক নির্যাতনের মাধ্যমে তাকে বিদায় করা হয়। ২য় বিয়ে করে ফজুমিয়ার হাট এলাকার কহিনুর বেগমকে তাকেও শারিরিক নির্যাতনের মাধ্যকে বিদায় করা হয়। ৩য় বিয়ে করে করইতলা এলাকার বাটাগো বাড়ীর পিয়ারা বেগমকে এখানে ২সন্তানের জন্ম হয়। বিভিন্ন অজুহাতে পিয়ারা বেগমকেও বিদায় করা হয়। ৪র্থ বিয়ে করে চর লরেঞ্চ ইউনিয়নের ভক্তেগো সমাজের পাটারী বাড়ীর রুনা বেগমকে। ৪র্থ স্ত্রী রুনা বেগমকে বিয়ের পর থেকে যৌতুকের জন্য বেদম মারধরসহ মানষিক নির্যাতন করে আসছে। বর্তমানে রুনা বেগম স্বামীর নির্মম নির্যাতনের শিকার হয়ে কমলনগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন আছেন। এই ব্যাপারে মোছলে উদ্দিনের সাথে আলাপ কালে তিনি বলেন আমি এই যাবত ৪টি বিয়ে করেছি। আমার একটি স্ত্রীও ভাল পড়েনি। এই বিষয়ে এলাকার সাধারন জনগন জানান মোছলে উদ্দিন খুবই খারাপ লোক বিয়ে করে স্ত্রীকে নির্যাতন করে বিদায় করা তাহার স্বভাব। দেশের প্রচলিত আইনে তাহার বিচার হওয়া উচিত।

আরও পড়ুন

Monday, November 29, 2021

সর্বশেষ