মেধাবী ছাত্র মহিবুলের পঙ্গুত্ব হতে মুক্তির জন্য সাহায্য চাই ।

চট্টগ্রাম :  আমার ছোট ভাই মোঃ মহিবুল হাসান, কূলগাঁও সিটি কর্পোরেশন উচ্চ বিদ্যালয় ও কলেজের ডিগ্রী দ্বিতীয় বর্ষের একজন মেধাবী ছাত্র (রোল নংঃ ১২১)। সে দীর্ঘদিন যাবৎ হাঁটুর একটি জটিল রোগে (Chondromalacia Patella with Osteochondritis Dissecans, Grade-11) আক্রান্ত যার কারণে তার চলাফেরা অত্যন্ত সীমিত হয়ে এসেছে এবং খুব দ্রুতই সে স্থায়ীভাবে পঙ্গুত্ব বরণ করতে যাচ্ছে। তার হাঁটুর হাড়ে অসংখ্য ছিদ্র তৈরি হচ্ছে এবং সেগুলো খুব দ্রুত বড় হয়ে পায়ের হাড় অকেজো করে দিচ্ছে।

এমতাবস্থায় দ্রুত উন্নত চিকিৎসার কোন বিকল্প নেই। আমাদের পরিবারটি একটি নিন্ম আয়ের পরিবার বিধায় আমরা তার যথাযথ চিকিৎসার ব্যবস্থা করতে পারছিনা। এতদসত্বেও ধারদেনা করে আমরা তাকে ঢাকা পঙ্গু হাসপাতাল এবং এ্যাপোলো হাসপাতালে চিকিৎসা করিয়েছি কিন্তু ডাক্তারগণ এই রোগের চিকিৎসা বাংলাদেশে সম্ভব নয় বিধায় তাকে অতিসত্বর উন্নত চিকিৎসার জন্য সিঙ্গাপুর নিয়ে যাবার পরামর্শ দিয়েছেন। আমার ছোট ভাইকে পঙ্গুত্ব থেকে রক্ষা করতে অতিসত্বর তার সার্জারি করানো প্রয়োজন এবং এর জন্য অন্ততপক্ষে ৩০ লক্ষ টাকার প্রয়োজন যা আমাদের মত নিন্মবিত্ত পরিবারের পক্ষে যোগান দেওয়া একেবারেই অসম্ভব এবং কল্পনারও বাইরে। তাই বলে আমরা তাকে চোখের সামনে স্থায়ীভাবে পঙ্গু হয়ে যেতে দিতে পারছি না।

অত্যন্ত মানবিক কারণেই আপনাদের সকলের কাছে বিনীত অনুরোধ, আপনারা আমার ভাইকে আপনাদের নিজের ভাই মনে করেই আপনাদের সাধ্যানুযায়ী সহায়তার হাত বাড়িয়ে দিন। একজন মেধাবী ছাত্রের আতঙ্কজনক ভবিষ্যৎ বেঁচে যাক আপনাদের সদয় সহানুভূতিতে। মহান সৃষ্টিকর্তা আপনাদের সাহায্যের ন্যায্য প্রতিদান অবশ্যই দিবেন। ধন্যবাদ।

যেভাবে সহযোগীতায় অংশ গ্রহণ করবেনঃ

**ব্যাংক একাউন্টঃ একাউন্ট নামঃ

মোঃ আমিনুর রহমান (মহিবুলের বাবা),

জনতা ব্যাংক লিমিটেড, বালুচড়া শাখা,

একাউন্ট নম্বরঃ 002078464

**বিকাশ নাম্বারঃ ০১৮৩৩-৪৫৪২৪৩

**ডাচ বাংলা ব্যাংক (রকেট)ঃ ০১৮৪৬-২৭৪৩৩৫

বিঃদ্রঃ আপনাদের সহযোগীতা নিয়ে কোন প্রকার অসদুপায় অবলম্বন করা হবেনা মর্মে প্রতিজ্ঞা করছি এবং সাহায্যের প্রতিটি আপডেট এবং হিসাব আপনাদের সামনে নিয়মিত উপস্থাপিত করা হবে।

কারো সংশয় বা জিজ্ঞাসা থাকলে ফোন করুনঃ ০১৮৩৩-৪৫৪২৪৩ এই নাম্বারে।

সাহায্যপ্রার্থী

মোঃ মনজুর হাসান

আক্রান্ত মহিবুল হাসান এর বড় ভাই

বালুচড়া আবাসিক এলাকা, চট্টগ্রাম।

আরও পড়ুন

Thursday, January 27, 2022

সর্বশেষ