ভোলায় লঞ্চের রোটেশন প্রথা বাতিলের দাবীতে মানববন্ধন ॥ বিক্ষোভ সমাবেশ ॥ স্মারকলিপি প্রদান

এম. শরীফ হোসাইন, ভোলা ॥ নৌ-পথে লঞ্চ মালিকদের রোটেশন প্রথা বাতিলের দাবীতে ভোলায় মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে। বৃহস্পতি সকাল ১০ টায় ভোলা প্রেসক্লাবের সামনে মানববন্ধন শেষে বিক্ষোভ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। সমাবেশ শেষে জেলা প্রশাসক মোং সেলিম উদ্দিনের কাছে স্মারকলিপি প্রদান করা হয়।

ভোলা জেলা লঞ্চ মালিক কল্যাণ পরিষদের ব্যানারে ভোলা জেলা আওয়ামীলীগের ত্রাণ ও সমাজ কল্যাণ বিষয়ক সম্পাদক এবং জেলা চেম্বার অব কমার্সের পরিচালক শফিকুল ইসলামের নেতৃত্বে সকল পেশাজীবি সংগঠন ও সকল শ্রেণীর সাধারণ ভুক্তভোগী জনতা এই মানববন্ধনে অংশগ্রহণ করে লঞ্চ রোটেশন প্রথার বিরুদ্ধে সোচ্চার হয়েছেন। ভোলা জজ কোর্টের পিপি সৈয়দ আশারাফ হোসেন লাবুর সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন, সাংবাদিক ও মানবাধিকার কর্মী মোবাশ্বের উল্লাহ চৌধুরী, সাবেক প্রফেসর দুলাল চন্দ্র ঘোষ, বিটিভির জেলা প্রতিনিধি আবু তাহের, এডভোকেট কিরন তালুকদার (এপিপি), ভোলা প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক সামস্-উল আলম মিঠু, রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটির ইউনিট সম্পাদক ও উপজেলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আজিজুল ইসলাম, প্রফেসর অধ্যক্ষ সাফিয়া খাতুন, জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের আহ্বায়ক আবু সায়েম, জেলা ক্রীড়া সংস্থার সম্পাদক ইয়ারুল আলম লিটন, এডভোকেট সোহেব মামুন, ভোলা জেলার হিন্দু-বৈদ্য ঐক্য পরিষদের আহবায়ক অভিনাস নন্দী, সুজনের সহ-সভাপতি আ.ন.ম রিয়াজ উদ্দিন, রুহুল আমিন কুট্টি, ভোলা বাপ্তা স্কুল এন্ড কলেজের অধ্যক্ষ রফিকুল ইসলাম, গৌরঙ্গ চন্দ্র, তালুকদার আনোয়ার পাশা বিপ্লব প্রমুখ।

মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, ভোলা-ঢাকা নৌ-রুটে ৪টি লঞ্চ আসা যাওয়ার কথা থাকলেও লঞ্চ মালিক কর্তৃপক্ষ সরকারের সেই নিষেধাজ্ঞা অপেক্ষা করে আইনকে বৃদ্ধাঙ্গলি দেখিয়ে রোটেশনের মাধ্যমে ২টি লঞ্চ চালাচ্ছে। এতে প্রতিনিয়ত ভোগান্তির স্বীকার হচ্ছে ভোলা জেলার ২০ লক্ষ মানুষ। এমনকি লঞ্চ কর্তৃপক্ষ যাত্রীদেরকে জিম্মি করে অতিরিক্ত ভাড়া আদায় এবং যাত্রীদের সাথে অসৌজন্যমূলক আচরণ করছে তারা। রোটেশন প্রথার কারণে প্রতিটি লঞ্চে প্রচুর ভীর থাকে। এত ভীর হয় তীল ধারনের কোন ঠাই থাকে না। অতিরিক্ত যাত্রীর কারণে মূমূর্ষ রোগীদেরকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকায় নেওয়া যাচ্ছে না এবং রোটেশনের জন্য অতিরিক্ত যাত্রী লওয়ায় প্রতিনিয়ত ঘটছে নানা দুর্ঘটনা। তাই অতিবিলম্বে যাত্রীদের কল্যাণের স্বার্থে প্রভাবশালী লঞ্চ মালিকদের রোটেশন প্রথা বাতিল করে সরকারি নিয়ম অনুযায়ী ৪টি লঞ্চ চলাচলের দাবি জানান বক্তারা। মানববন্ধন শেষে ভোলা জেলা প্রশাসক বরাবরে স্মারকলিপি প্রদান করা হয়।

উল্লেখ্য, লঞ্চ মালিকদের বিরুদ্ধে ভোলায় কোর্টে রুহুল আমিন কুট্টি বাদী হয়ে একটি মামলা দায়ের করেন। যা বর্তমানে চলমান রয়েছে।

আরও পড়ুন

Sunday, September 26, 2021

সর্বশেষ