ভোলায় জমির বিরোধ নিয়ে মা-ছেলেকে   পিটিয়ে আহত

ভোলা প্রতিনিধি : ভোলা সদর উপজেলার উত্তর দিঘলদী ইউনিয়নের ৩ নং ওয়ার্ডের বেপারী বাড়িতে জমি -জমার বিরোধকে কেন্দ্র করে  মা ও তার ছেলেকে পিটিয়ে মারাত্মক আহত করেছে স্থানিয় সন্ত্রাসীরা। আহতরা ভোলা সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছে। আহত ফাতেমা বেগম (৫০) জানায়, তার  ভাসুর মজিবল বেপারীর সাথে দীর্ঘ দিন ধরে প্রায় ৭০ শতাংশ জমি নিয়ে বিরোধ চলে আসছে। মজিবল বেপারী ৭০ শতাংশ জমি জবর দখল করে ভোগ দখল করছে।  ওই জমি নিয়ে তাদের সাথে প্রায়ই বাকবিতণ্ডা চলছে। স্থানিয় ভাবে একাধিকবার শালিস মিমাংসার  উদ্যোগ নিলেও তারা তা  উপেক্ষা করে দলের প্রভাব দেখিয়ে জমি দখল রাখছে। গত  ১৯ মার্চ সোমবার একই ভাবে আরো জমি দখলে নিতে যায় মজিবল ও তার ছেলেরা। এ সময় ফাতেম বেগম বাধা দিলে তাকে মজিবল বেপারী ও তার ছেলে জাহাঙীর, তাজউদ্দিন, নজরুল আল-আমিন, জাহিদ ও নাহিদ মিলে এলোপাতারি ভাবে মারধর করতে থাকে। এ সময় ফাতেমা বেগমকে উদ্ধার করতে গেলে ছেলে শরীফকে  (১৬) পিটিয়ে মারাত্মক আহত করে। পরে স্থানিয় লোকজন মা ও ছেলেকে ও সন্ত্রাসীদের কবল থেকে উদ্ধার করে ভোলা সদর হাসপাতালে পাঠায় । এদিকে ফাতেমা ও তার ছেলেকে পিটিয়ে  আহত করেও খ্যান্ত হয়নি মজিবল ও তার সন্ত্রাসী ছেলেরা। তারা উল্টো আশ পাশের নিরিহ লোকজনসহ ৭ জনের নামে ভোলা সদর মডেল থানায় মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানি করছে বলে অভিযোগ করেছেন ফাতেমা ও হয়রানীর শিকার লোকজন। এলাকাব্সী জানান,মজিবল ও তার ছেলেরা ভুমিদস্যু ও সন্ত্রাসী প্রকৃতির লোক। কথায় কথায় তারা মানুষকে মারধর করে। তাদের কাছে কয়েকটি পরিবার জিম্মি হয়ে আছে। তাদের অত্যাচারের হাত থেকে বা্ঁচতে ভুক্তভোগি ফাতেমা বেগম প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।

আরও পড়ুন

Thursday, September 23, 2021

সর্বশেষ