সারাদেশে নানা আয়োজনে মহান স্বাধীনতা দিবস উদযাপন

প্রয়াস নিউজ ডেস্ক : রাজধানীর মতো সারাদেশে বর্ণাঢ্য আয়োজনে উদযাপন করা হচ্ছে মহান স্বাধীনতা দিবস। সূর্যোদয়ের পর থেকেই শহীদ বেদীতে ফুল দিয়ে একাত্তরের সেনানীদের শ্রদ্ধা জানান সর্বস্তরের মানুষ। কুচকাওয়াজ ও মনোজ্ঞ ডিসপ্লেতে অংশ নেয় শিশু শিক্ষার্থীরা। উন্নয়নশীল দেশে উত্তরণের অর্জনকে তুলে ধরে অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশ গড়ার প্রত্যয় জানান সবাই।

চট্টগ্রাম : ভোরের আলো ফোটার সঙ্গে সঙ্গে তোপধ্বনি ও সশস্ত্র সালামের মধ্য দিয়ে শুরু হয় মহান স্বাধীনতা দিবসের কর্মসূচি। চট্টগ্রাম কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান জেলা ও বিভাগীয় প্রশাসনসহ সর্বস্তরের মানুষ।

এরপর নগরীর এম এ আজিজ স্টেডিয়ামে কুচকাওয়াজে অংশ নেন স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থীরা। মনোজ্ঞ ডিসপ্লেতে তুলে ধরা হয় একাত্তরের মহান মুক্তিযুদ্ধকে। প্রদর্শিত হয় রণাঙ্গনে মুক্তিযোদ্ধাদের নানা কৌশল।

ময়মনসিংহ : সকাল থেকে ময়মনসিংহের রফিক উদ্দিন ভূঁইয়া স্টেডিয়ামে জড়ো হয় বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থী ও স্কাউটস সদস্যরা। তাদের নানা ধরনের শারীরিক ডিসপ্লে বিমোহিত করে দর্শকদের।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া: সূর্যোদয়ের সঙ্গে সঙ্গে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার ফারুকী পার্কের স্মৃতিস্তম্ভে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান স্থানীয় সংসদ সদস্য। এরপর জেলা প্রশাসন, পুলিশ বিভাগসহ বিভিন্ন শ্রেণি পেশার মানুষ ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান শহীদ মুক্তিযোদ্ধাদের। পরে জেলা স্টেডিয়ামে মনোজ্ঞ ডিসপ্লে অনুষ্ঠিত হয়।

স্থানীয় সংসদ সদস্য জানান, আমাদের শহীদদের আত্মত্যাগ ব্যথা যায়নি। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিুবুর রহমান যে উচ্চ আকাঙ্ক্ষা নিয়ে দেশ স্বাধীন করেছে, তার কন্যা শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ সেই স্বপ্ন পূরণের পথে রয়েছে।

রাজশাহী : রাজশাহী জেলা প্রশাসনের আয়োজনে শহীদ মুক্তিযোদ্ধা স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত হয় শিশু-কিশোর সমাবেশ। বিভিন্ন স্কুল কলেজের শিক্ষার্থীদের অংশগ্রহণে সম্মিলিত কুচকাওয়াজ, শারীরিক কসরত ও ডিসপ্লের আয়োজন করা হয়।

সিলেট : সূর্যোদয়ের আগেই সিলেটের কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে প্রাঙ্গণে হাজারো মানুষের ঢল নামে। শহীদ বেধিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন বিভিন্ন রাজনৈতিক, সামাজিক, সাংস্কৃতিক ও স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের নেতাকর্মীসহ সর্বস্তরের মানুষ।

নীলফামারী : জলঢাকায়  গোলমুন্ডা আল হেলাল একাডেমি স্কুল  ও ভাবনচুর এম,টি,এস উচ্চ বিদ্যালয় ফুটবল মাঠে স্বাধীনতা দিবস পালিত l

মুক্তিযুদ্ধের স্বপ্ন ছিল বিশাল। বাঙালি একটি স্বাধীন রাষ্ট্র চেয়েছিল। চেয়েছিল এমন একটি রাষ্ট্র, যা প্রতিষ্ঠিত হবে কিছু আদর্শের ভিত্তির ওপর। স্বাধীনতা দিবস আবার এসেছে,অনেক রক্তের বিনিময়ে অর্জিত সেসব আদর্শের দিকে ফিরে তাকানোর দাবি নিয়ে।এরে ধারাবাহিকতায় নীলফামারী জলঢাকা উপজেলার গোলমুন্ডায় বীর শহীদদের স্মরনে স্বাধীনতা দিবস পালন করে আল-হেলাল একাডেমি স্কুলের শিক্ষক/শিক্ষিকা পরিচালনা পরিষদের সদস্যও ছাত্র/ছাত্রীবৃন্দ।সকাল ৮টায় জাতীয় সংগীতের মাধ্যমে প্রতিষ্ঠানে জাতীয় পতাকা উত্তোলন করে এক বর্নাঢ্য র‍্যালী নিয়ে গোলমুন্ডা বাজারের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিন শেষে শহীদ মিনারে পুষ্পমাল্য অর্পন করে।সেখানে শহীদদের স্মরনে এক মিনিট নিরবতা পালন করে।সেখান থেকে ফিরে এসে  দোয়া ও আলোচনা সভার এবং বিভিন্ন ধরনের প্রতিযোগিতার আয়োজন করে।আল-হেলাল একাডেমির সহকারী শিক্ষক রাফিউল ইসলাম চঞ্চল এর পরিচালনায়,
সভায় মোয়াম্মার আল হাসানের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ইউ.পি. চেয়ারম্যান অধ্যাপক মাওলানা তোজাম্মেল হোসাইন,বিশেষ অতিথি ছিলেন আল হেলাল একাডেমি স্কুল পরিচালনা পরিষদের সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা আমিনুর রহমান,গোলমুন্ডা উচ্চ বিদ্যালয়ের সিনিয়র সহকারী শিক্ষক মাহমুদ আল-হাসান,আল হেলাল একাডেমি স্কুল পরিচালনা পরিষদের সদস্য আমিনুর রহমান।পরে স্কুলের সকল ছাত্র/ছাত্রীদের নিয়ে এক মনোঙ্গ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান অনুষ্টিত হয়।শেষে বিজয়ীদের হাতে পুরস্কার তুলে দেওয়া হয়।

 

এদিকে ভাবনচুর এম,টি,এস উচ্চ বিদ্যালয় ফুটবল মাঠে সমাজ সংস্কার প্রকল্প ও ভাবনচুর সাইফোন গোল্ডেন তিস্তা স্পোটিং ক্লাবের উদ্যোগে এবং ভাবনচুর এম,টি,এস উচ্চ বিদ্যালয়,এম,টি,এস সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সার্বিক সহযোগীতায় বীর শহীদদের স্মরনে স্বাধীনতা দিবস পালন করা হয়।

সকাল ৮টায় জাতীয় সংগীতের মাধ্যমে বিদ্যালয়ে জাতীয় পতাকা উত্তোলন করে  শহীদ মিনারে পুষ্পমাল্য অর্পন করে।সেখানে শহীদদের স্মরনে এক মিনিট নিরবতা পালন শেষে  দোয়া ও আলোচনা সভার এবং বিভিন্ন ধরনের ক্রিড়াপ্রতিযোগিতার আয়োজন করে।এম,টি,এস,উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক শ্রী সুরেশ চন্দ্রের পরিচালনায়, এম,টি,এস,উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আনিছুর রহমান টিপুর সভাপতিত্বে, উপস্হিত ছিলেন,মোঃ মশিয়ার রহমান,মানবাধিকার প্রতিস্ঠা ও বাস্তবানয় সংস্হার রংপুর বিভাগী কার্য নির্বাহী সদস্য,এছলাম উদ্দিন প্রধান শিক্ষকএম,টি,এস,সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়,শরিফুল ইসলাম(সেনা সদস্য)পরিচালক সমাজ সংস্কার প্রকল্প,নুর মোহাম্মদ নাসিম(মিলন)বি,এস,সি সহকারী শিক্ষক এম,টি,এস উচ্চ বিদ্যালয়,মোনায়েম হোসেন ইউপি সদস্য,আবুল কাসেম সমাজ সেবক ভাবনচুর,মুক্তারানী, মশিয়ার রহমান,সহকারী শিক্ষক এম,টি,এস সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়,মোক্তার হোসেন,ফইজুল ইসলাম বি,এস,সি সহকারী শিক্ষক এম,টি,এস উচ্চ বিদ্যালয়,মইনুল হোসেন,এমদাদুল সমাজ সেবক ভাবনচুর,আরো উপস্হিত ছিলেন একরামুল, শাহাজামাল,তুহিন,লিখন,ফরিদুল,সফিক ও শরিফুল প্রমুখ।
প্রতিযোগীতা শেষে বিজয়ীদের হাতে পুরস্কার তুলে দেওয়া হয়।

এছাড়ারংপুর ,যশোর ,বরিশাল ,ভোলা ,চাঁদপুর ,পানি ,নোয়াখালী ও লক্ষ্মীপুরের রায়পুর ,রামগঞ্জ ,রামগতি ,কমলনগর ও লক্ষ্মীপুর সদর সহ সারাদেশে বিনম্র শ্রদ্ধা আর ভালোবাসায় স্মরণ করা হচ্ছে একাত্তরের সেনানীদের।

আরও পড়ুন

Thursday, September 16, 2021

সর্বশেষ