ঘুষ ছাড়া ঋণ মিলছে না শিক্ষকদের কপালে রুপালী ব্যাংক কুতুবা শাখার ম্যানেজারের বিরুদ্ধে ঘুষ বাণিজ্যের অভিযোগ l

বোরহানউদ্দিন (ভোলা) প্রতিনিধি: ভোলা বোরহানউদ্দিন উপজেলা কুতুবা শাখার ম্যানেজার আবুল কালাম আজাদের বিরুদ্ধে শিক্ষকদের ঋণে ঘুষ বাণিজ্যের অভিযোগ উঠেছে। শিক্ষকদের সার্ভিস লোন পাশ করার নামে তিনি এ দুর্নীতি করছেন। শিক্ষকরা নিরবে ঘুষ দিলেও বেতনের ঝামেলার ভয়ে কেউ তার বিরুদ্ধে মুখ খুলতে সাহস পাচ্ছে না।
সূত্র মতে জানা যায়, কুতুবা শাখার বর্তমান ম্যানেজার আবুল কালাম আজাদ কুঞ্জের হাট শাখার ব্যবস্থাপকের দায়িত্বে থাকাকালীন এবং বর্তমানে কুতুবা শাখায় শিক্ষকদের সার্ভিস লোন পাশ করার নামে কৌশলে মোটা অংকের টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে। কুঞ্জেরহাট শাখায় দায়িত্বে থাকাকালীন সময় ৮ লক্ষ টাকা লোন পাশ করাতে ২৫ হাজার টাকা ঘুষ নেন এক প্রধান শিক্ষকের কাছ থেকে। এছাড়া কুতুবা শাখায় দায়িত্বকালীন সময় একই লোন নবায়নে একই ব্যক্তি ও তার স্ত্রী’র কাছ থেকে ৯ হাজার টাকা ঘুষ নেওয়ার অভিযোগ উঠে এ ব্যাংক ম্যানেজারের বিরুদ্ধে। বেসরকারী স্কুল, মাদ্রাসা ও কলেজের শিক্ষকদের এমপিওর অর্থ বোরহানউদ্দিন রুপালী ব্যাংকের কুতুবা শাখায় জমা হওয়ার সুবিধার্থে শিক্ষকদের ঝুকিহীন ঋণ পেতেও ম্যানেজারকে পদে পদে ঘুষ দিয়ে পাশ করতে হয়। নতুবা শিক্ষকদের কপালে জুটছে না সার্ভিস লোন। এমন অভিযোগ করেন বোরহানউদ্দিনের ভুক্তভোগি কয়েকজন শিক্ষক। অনেকেই ব্যাংকে হয়রানীর ভয়ে এ ব্যাংক ম্যানেজারের বিরুদ্ধে মুখ খুলতে সাহস পাচ্ছে না।
এব্যাপারে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক শর্তে মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের এক প্রধান শিক্ষক জানান, বর্তমান কুতুবা শাখার রুপালি ব্যাংক ম্যানেজার আবুল কালাম ঘুষ ছাড়া কোন শিক্ষকের সার্ভিস লোন দিচ্ছে না। যারা ঘুষ দিতে নারাজ তাদেরকে নানা ভাবে হয়রানীর শিকার হতে হয়। আমি ও আমার স্ত্রী প্রাইমারী’র শিক্ষিকা সার্ভিস লোন পেতে ৩৪ হাজার টাকা এ ব্যাংক ম্যানেজার আবুল কালাম কে ঘুষ দিতে হয়েছে। তিনি আরোও জানান শিক্ষকদের কাছে ঘুষ বাণিজ্যের মাধ্যমে কোটি টাকা অবৈধ ভাবে হাতিয়ে নিয়েছে এ ব্যাংক ম্যানেজার।
এব্যাপারে রুপালী ব্যাংক কুতুবা শাখার ম্যানেজার আবুল কালাম এর সাথে আলাপকালে তিনি তার বিরুদ্ধে আনিত অভিযোগ অস্বীকার করেন।

আরও পড়ুন

Wednesday, September 22, 2021

সর্বশেষ