পাবনায় ২১ কোটি টাকার রাস্তা নির্মাণ কাজ শেষ পর্যায় l

ইব্রাহীম খলীল পাবনা জেলা প্রতিনিধি : পাবনা শহরের মুজাহিদ ক্লাব এলাকার মহাসড়কে এমন দিন নেই যে কোন না কোন দুর্ঘটনা ঘটতো না। সামান্য বৃষ্টি হলেই তলিয়ে যেত মহাসড়ক। বন্ধ হয়ে যেতো যান চলাচল। মানুষের দুর্ভোগ ছিল নিত্যদিনের সঙ্গী। দীর্ঘদিন চরম দুর্ভোগে দিন কাটাচ্ছিল পাবনার মানুষ। অবশেষে সে মহাসমস্যার দিন শেষ হতে চলেছে।
২০ কোটি ৮৪ লক্ষ টাকা ব্যয়ে পাবনা শহরের মধ্যের রাস্তার নির্মাণ কাজ প্রায় শেষের পথে। ইতোমধ্যে শতকরা ৯৫ শতাংশ কাজ সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন হয়েছে। বাকী কাজ নির্ধারিত সময়ের মধ্যে সম্পন্ন হবে বলে আশা করছে কর্তৃপক্ষ। পাবনা সড়ক বিভাগ সুত্র জানায়, এলাকার মানুষের দাবীর পরিপ্রেক্ষিতে ২০১৮ সালের জুন মাসে বাসটার্মিনাল থেকে শহর হয়ে গাছপাড়া মোড় পর্যন্ত ৭ দশমিক ৬৩ কিলোমিটার মহাসড়কটির সংস্কার কাজ হাতে নেওয়া হয়। গাছপাড়া থেকে এডওয়ার্ড কলেজ অংশের কাজ ইতোমধ্যেই শেষ হয়েছে। মুজাহিদ ক্লাব থেকে পাবনা বাসটার্মিনাল পর্যন্ত রাস্তার কাজ চলছে। নির্ধারিত সময়ের কাজ সম্পন্ন হবে বলে আশা করা হচ্ছে। এখন রাস্তাটি দৃষ্টি নন্দন হয়েছে। পাবনা শহরের মুজাহিদ ক্লাব এলাকার জাহিদ হোসেন জামিম বলেন, এই রাস্তাটি সংস্কারের জন্য আমরা দীর্ঘদিন ধরে দাবী করে আসছিলাম। অবশেষে রাস্তাটি সংস্কার হয়েছে। তিনি বলেন, এত সুন্দর রাস্তা হয়েছে যা আমাদের কল্পনার বাইরে পাবনা শহরের বালিয়াহালট গ্রামের মোহাম্মদ হোসাইন বলেন, পাবনার সড়কে অকল্পনীয় উন্নয়ন হয়েছে। পাবনা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্বদ্যিালয়ের ছাত্র রাজিব হোসেন বলেন, রাস্তা ভাঙাচোরার কারণে আগে মুজাহিদ ক্লাব এলাকা দিয়ে শহরে আসতে ভয় পেতাম। এখন সুন্দর এবং প্রায় ডাবল রাস্তা তৈরি হচ্ছে। প্রকল্পের ঠিকাদার ধ্রুব কন্সট্রাকশনের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মো. সাইফুল আলম স্বপন চৌধুরী বলেন, এলাকার মানুষের দাবীর পরিপ্রেক্ষিতে উন্নত এবং টেকসই মালামাল ব্যবহার করে এই রাস্তা নির্মাণ করা হয়েছে। সড়ক বিভাগের উর্ধতন কর্তৃপক্ষ এবং স্থানীয়রা রাস্তাটির কাজ দেখে সন্তোষ প্রকাশ করেছেন। এই রাস্তার সুফল খুব শিগগির পাবনার মানুষজন পাবে। পাবনা সড়ক বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী সমিরন রায় বলেন, শুধু বিটুমিনাস সারফেসিং নয় এই রাস্তার পাশে ড্রেন নির্মাণ করা হচ্ছে। ফলে রাস্তাটিতে পানি জমে থাকবে না। রাস্তাটি টেকসই হবে। এই সড়কটির সংস্কার ভাল মানের হয়েছে।

আরও পড়ুন

Sunday, September 26, 2021

সর্বশেষ