লক্ষ লক্ষ টাকা রাজস্ব হারাচ্ছে সরকার রামগতি লক্ষ্মীপুর সড়কে লাইসেন্স ছাড়াই চলছে লোকাল বাস l

রামগতি (লক্ষ্মীপুর) প্রতিনিধি : লক্ষ্মীপুর রামগতি সড়কে রুট পারমিট, লাইসেন্স, ট্যাক্স টোকেন, ইন্সুরেন্স, আয়কর না দিয়ে সম্পূর্ণ অবৈধভাবে চলছে যাত্রীবাহী লোকাল বাস।
জানা যায়, লক্ষ্মীপুর থেকে রামগতি পর্যন্ত দ্বীর্ঘ ৫৬ কি:মিটার সড়কে চলছে এ সকল অবৈধ বাস। সরকারকে বিশাল অংকের রাজস্ব ফাঁকি দিয়ে কতিপয় অসাধু ব্যক্তি রুট পারমিট, লাইসেন্স, ট্যাক্স টোকেন, ইন্সুরেন্স, আয়কর না দিয়ে সম্পূর্ণ অবৈধভাবে চালাচ্ছে লোকাল বাসগুলো। যার ফলে সরকার লক্ষ লক্ষ টাকা রাজস্ব হারাচ্ছে। অন্যদিকে শ্রমিক ও চালকদের নেই কোন বৈধ ড্রাইভিং লাইসেন্স। বিভিন্ন শহর থেকে অচল পুরনো গাড়ী এনে রং করে অসাধু মালিকরা অসাধু কর্মকর্তাদের ম্যানেজ করে রাস্তায় নামিয়ে দিচ্ছে এসকল অবৈধ লক্কড় ঝক্কড় বাস। সড়ক সংশ্লিষ্ট সকল বিভাগকে মাসিক মাসোহারা দিয়ে বছরের পর বছর চলছে এ সকল অবৈধ যান।
সংক্ষুব্দ যাত্রীরা জানান, মিশু নামের ৫ টি, অপূর্ব-৫ টি, সালমান, ইয়াছিন এন্ড তামিম, শিরিন সানজিদা এন্টারপ্রাইজ, অপূর্বা-৫টি, আজাদ, মায়ের দোয়াসহ বেশ কয়েকটি অবৈধ লোকাল বাস বহাল তবিয়তে রাস্তা দাপিয়ে বেড়াচ্ছে। যুগে যুগে নেতারা এসকল গাড়ী থেকে প্রতিদিন জিপি আদায় করা হলেও তাদের কোন স্থায়ী ষ্ট্যান্ড নেই। ফলে সড়কে যানজট বিশৃংখলা হাঙ্গামা নিত্য দিনের ব্যাপার। বিআরটিএ অফিসসূত্রে জানা যায়, জেলা থেকে নিবন্ধন নেয়ার কথা থাকলেও জেলাতে কোন কাগজপত্র নেই। বাসগুলো কিভাবে চলছে তা তারা জানেনা। সংশ্লিষ্ট দপ্তরগুলোর নেই কোন তৎপরতা, তদারকি ও দায়বদ্ধতা।
অনভিজ্ঞ ড্রাইভারদের কারনে রাস্তায় প্রায়ই ঘটছে দূর্ঘটনা। এ পর্যন্ত অসংখ্য মানুষের জীবন কেড়ে নিয়েছে অবৈধ বাসের অনভিজ্ঞ ড্রাইভাররা। অসংখ্য মানুষ অঙ্গ হারিয়ে চিরতরে পঙ্গুত্ব বরন করেছে। প্রশাসনের তদারকি না থাকার কারণে যাত্রীদের কাছ থেকে অতিরিক্তি ভাড়া আদায় কর হচ্ছে বলে সাধারন যাত্রীদের অভিযোগ।
এ বিষয়ে বাস মালিক ইকবাল হোসেন খোকন বলেন, আমাদের লাইসেন্সে গাড়ী সারাদেশে চলতে পারবে। তবে কিছু গাড়ীর সমস্যা আছে।
বিআরটিএ লক্ষ্মীপুর সার্কেলের সহকারী পরিচালক মো: আনোয়ার হোসেন জানান, লক্ষ্মীপুর রামগতি সড়কে চলাচলকারী লোকাল বাসগুলোর রুট পারমিট, লাইসেন্স, ট্যাক্স টোকেন, ইন্সুরেন্স, আয়কর কিছুই নেই। আমাদের দপ্তর প্রায়ই মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করছে। খবর পেয়ে অবৈধ যানগুলো সরে যায়। অভিযান অব্যাহত থাকবে।
উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মদ রফিকুল জানান, বিষযটি জানা ছিলোনা। অচিরেই অবৈধ যানবাহন বন্ধে কার্যকর পদক্ষেপ গ্রহন করা হবে।

আরও পড়ুন

Sunday, September 26, 2021

সর্বশেষ