২৭ বছর পর, কেন্দ্রীয় ছাত্রদলের কাউন্সিল, সম্পাদক পদে এগিয়ে- শাহ নেওয়াজ

আমজাদ হোসেন আমু : বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী ছাত্রদলের কেন্দ্রীয় কাউন্সিলকে ঘিরে ব্যাপক তৎপরতা শুরু হয়েছে। দীর্ঘ ২৭ বছর পর হচ্ছে এ ষষ্ঠ কাউন্সিল। এটি নিয়ে চলছে জেলা-উপজেলা সহ বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ছাত্র সংগঠনের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক প্রার্থীরাদের নানা গুনজন । শুরু হয়েছে ভোট চাওয়া ও নানামুখি আয়োজন। এ আয়োজনে সম্পাদক পদে আলোচিত ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্রদলের যুগ্ম সম্পাদক শাহ নেওয়াজ।

তিনি জেলা-মহানগর -বিশ্ববিদ্যালয় সহ ছাত্রদলের কাউন্সিলরদের সাথে দেখা করছেন। ভোট চাওয়ার পাশাপাশি বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার মুক্তির আন্দোলন জোরদার করতে ছাত্রদলের সাংগঠনিক কাঠামো শক্তিশালী করার প্রতিশ্রুতি দিচ্ছেন।

শাহ নেওয়াজ সাংগঠনিক ভাবে জাতীয়তাবাদী শক্তিকে বুকে ধারণ করে বিগত আন্দোলন সংগ্রামে কাজ করছেন। দলের আন্দোলনে বহুবার নির্যাতন ও হামলা-মামলার শিকার হয়েছেন।

এসময় শাহ নেওয়াজ বলেন, দীর্ঘ ২৭ বছর পর জাতীয়তাবাদী ছাত্রদলের কাউন্সিল হচ্ছে। এ কাউন্সিলে সকল সাংগঠনিক ইউনিট কাজ করছে। তারা তাদের ভোটের মাধ্যমে আগামীর ছাত্রদলের সভাপতি – সম্পাদক নির্বাচিত করবে। যারা আগামী দিনে রাজপথে থেকে দেশ নেত্রীর মুক্তির দাবী সহ আন্দোলন সংগ্রামে তৃণমূল ছাত্রদের পাশে থাকবে। তাদেরকেই ভোটাররা নির্বাচিত করবে।

তিনি আরও বলেন, ছাত্রদলের ষষ্ঠ কাউন্সিলে সম্পাদক পদে বাচাই-যাচাই শেষে প্রায় ৩০ জনের মনোনয়নপত্র বৈধ হয়েছে। এসব প্রার্থীদের মধ্যে আশা করছি, কাউন্সিলরা ভোটে আমাকে বিজয় করবে। এবং আশা করছি বিজয় অর্জন করে আগামী আন্দোলন সংগ্রামে রাজপথে দেশ নেত্রীর মুক্তি ও তারণ্যের অহংকার তারেক রহমানের সকল মিথ্যে মামলা প্রত্যাহারে সংগ্রাম চালিয়ে যাবো।

সারাদেশের জেলা-উপজেলা- মহানগর ও বিশ্ববিদ্যালয় পর্যায়ের ছাত্রদলের ১১৭টি সাংগঠনিক ইউনিটের ৫৮০ জন কাউন্সিলরের ভোটে এবার সংগঠনের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হবেন। তৃণমূল পর্যায়ের এসব প্রতিনিধির নিয়ন্ত্রণকারী বিএনপি নেতাদের সঙ্গেও যোগাযোগ করছেন পদপ্রত্যাশী নেতারা।

তিতুমির কলেজ ছাত্রদলের সহ সম্পাদক মো. ফয়সল মাহমুদ জানান, ছাত্রদলের কাউন্সিল ঘিরে চাঙ্গা হয়ে উঠেছে পুরো সংগঠন। প্রার্থীদের মতো তাদের অনুসারীরাও যাচ্ছেন ভোটারদের কাছে। অতীতে আন্দোলন ও কর্মসূচিতে সক্রিয় থাকার প্রমাণ উপস্থাপন করছেন। প্রচার-প্রচারণায় সরগরম হয়ে উঠছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলোও। সব প্রার্থী যার যার অবস্থানে ভোট চাওয়া ও নিজেকে তুলে ধরছেন ভোটারদের কাছে।

আগামী ১৪ সেপ্টেম্বর ছাত্রদলের ষষ্ঠ কাউন্সিল হবে। এদিন সকাল ১০টা থেকে দুপুর ২টা পর্যন্ত দুই পদের নেতা নির্বাচনের ভোট নেওয়া হবে।

সাধারণ সম্পাদক প্রার্থী শাহ নেওয়াজ ছাড়াও অন্যান্য প্রার্থীরা হলেন, : জুয়েল হাওলাদার (সাইফ মাহমুদ জুয়েল), আমিনুর রহমান আমিন, মো. হাসান (তানজিল হাসান), শেখ আবু তাহের, জাকিরুল ইসলাম জাকির, মোহাম্মদ কারিমুল হাই (নাঈম), মাজেদুল ইসলাম, আলাউদ্দিন খান, ডালিয়া রহান, মিজানুর রহমান সজীব, নাজমুল হক হাবীব, ওমর ফারুক শাকিল চৌধুরী, মহিনউদ্দিন রাজু, মুন্সি আনিসুর রহমান, ইকবাল হোসেন শ্যামল, মিজানুর রহমান শরীফ, রাশেদ ইকবাল খান, আরিফুল হক, নিয়াদ মোহাম্মদ ইকবাল হোসাইন, আজিজুল হক সোহেল, শেখ মো. মশিউর রহমান রনি, আবদুল মোমেন মিয়া, রাকিবুল ইসলাম রাকিব, মোস্তাফিজুর রহমান, মোহাম্মদ আবুল বাশার, আসাদুজ্জামান রিংকু, সোহেল রানা, কাজী মাজহারুল ইসলাম, এএএম ইয়াহ ইয়া।

প্রয়াস নিউজ /টি2

আরও পড়ুন

Thursday, September 23, 2021

সর্বশেষ