ভোলায় প্রতারণার ফাঁদে ফেলে অসহায় পরিবারের জমি দখল

ভোলা প্রতিনিধি ঃ-

প্রতারনা ও জাল জালিয়াতির মাধ্যমে একটি অসহায় পরিবারের জমি দখল করে নিয়েছে স্থানীয় প্রভাবশালী কয়েকজন ব্যক্তি। জমি হারিয়ে ভৃক্তভোগী পরিবারটি বিচারের দাবী নিয়ে জনপ্রতিনিধি ও প্রশাসনের দ্বারে দ্বারে ঘুরে বেড়াচ্ছে।
উত্তর দিঘলদী ইউনিয়নের ৩ নং জিওর হাওলাদার বাড়ির নিজামুল হকের ছেলে হুমায়ন কবির জানান,তিনি ২০০৭ সালে চাচাত ভাই নিরবের কাছে উত্তর জয়নগর মৌজার দাগ নং ১২২৩/১২২৫/১৯৮ এবং খতিয়ান নং ৫৪০/৫৪১/৬০০/২৮৩ এর আওতাভুক্ত ১৬ শতাংশ নাল জমি বিক্রি করে। নিরব জমি ক্রয় করে ভোগ দখল করে আসছে। টাকার প্রয়োজন হওয়ায় ওই জমি ৩০/৮/ ২০১৮ সালে আবার বিক্রি করে আলীনগর ইউনিয়নের রুহিতা ৭ নং ওয়ার্ডের কয়ছরের ছেলে ছায়েব আলী ও তার স্ত্রী মঞ্জু বেগমের কাছে। খবর পেয়ে পুর্বে বিক্রিত জমি নিজেরা ক্রয় করার জন্য আইনের বাধ্যবাদকতা থাকায় হুমায়ন তার আরেক চাচাত ভাই মফিজের ছেলে রবিউলকে বাদি বানিয়ে১১/৬/১৯ /ইং তারিখে সাড়ে তিন লাখ টাকাসহ আদালতে জমা দেন।মামলার কয়েক মাস অতিবাহিত হলে অর্থ লোভী রবিউলকে ম্যানেজ করে ওই বাড়ির প্রতারক হেমায়েত হাং,কামরুল হাং ও বিপ্লব হাং মিলে প্রতারনা করে ৪/১/১৯ ইং তারিখে মামলাটি তুলে নেয় রবিউল।
মামলা তুলে নিয়ে টাকা উত্তোলন করে ভাগবাটোয়ারা করে নেয় তারা। জানতে পেরে জমা দেয়া টাকা রবিউলের কাছ থেকে ফেরত চাইলে রবিউল নানান তালবাহানা করে এবং হুমকি দেয় । হুমায়ন আরো জানায়, তাদের নাল দিয়ে জমি বিক্রি ও দখল দেখিয়ে চাচাত ভাই নিরব ছায়েব আলীর কাছে বিক্রি করলেও ছায়েব আলীর কাছ থেকে মোটা অংকের টাকা নিয়ে সড়কের পাশ থেকে মুল্যবান জমি জবর দখল নিয়ে ছায়েব আলীকে মেপে দেয় হেমায়েত হাং,কামরুল হাং ও বিপ্লব হাং।
এসবের প্রতিবাদ করে হুমায়ন ও তার পরিবার এখন নিরপত্তাহীনতায় ভুগছে।
এদিকে হুমায়নের জমি দখলে নিয়েও খ্যান্ত হয়নি প্রতারক হেমায়েত হাং,কামরুল হাং,রবিউল হাং ও বিপ্লব হাং। তারা হুমায়নকে মিথ্যা অভিযোগে ভোলা থানায় আটক করিয়ে আবার ছাড়ানোর নামে হুমায়নের স্ত্রীর কাছ থেকে ১৫ হাজার টাকা নিয়েছে বিপ্লব। বিপ্লব থানার দালাল হিসেবে পরিচিত। ভুক্তভোগী পরিবারটি তাদের টাকা ও জবর দখলকৃত জমি ফেরত পাওয়ার জন্য প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।

আরও পড়ুন

Thursday, September 23, 2021

সর্বশেষ