আটঘরিয়ায় কর্মীবান্ধব শ্রমিকলীগের দুই নেতার বিরুদ্ধে মিথ্যা অভিযোগের প্রতিবাদ

ইব্রাহীম খলীল, পাবনা জেলা প্রতিনিধি।। প্রয়াস নিউজ: : আটঘরিয়া উপজেলা শ্রমিকলীগের সভাপতি-সম্পাদক কর্মী বান্ধব নেতা বুলবুল আহম্মেদ ও কামরুল ইসলামদের কে নিয়ে মিথ্যা অভিযোগ ও স্থানীয় বিভিন্ন গণমাধ্যমে প্রকাশিত সংবাদের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন শ্রমিকলীগের নেতা-কর্মীরা। শনিবার (৩০ মে) আটঘরিয়া উপজেলা শ্রমিকলীগের নেতা-কর্মীরা এক বিবৃতিতে এই নিন্দা ও প্রতিবাদ জানান।

নেতাকর্মীরা বলেন, রাজনৈতিক প্রতিহিংসার জেরে একটি অসাধু পক্ষ আমাদের কর্মী বান্ধব নেতা বুলবুল আহম্মেদ ও কামরুল ইসলাম কে মিথ্যা অপবাদ দেওয়া হয়। আর সেই মিথ্যা ও বানোয়াট অভিযোগটি যাচাই না করেই স্থানীয় কিছু পত্র-পত্রিকায় ফলাও করে সংবাদ প্রকাশ করে। আমাদের মতে, এটা শ্রমিকলীগ তথা আওয়ামীলীগের সুনাম নষ্ট করার অপচেষ্টা মাত্র।

ওই অসাধু পক্ষটি শ্রমিকলীগের সভাপতি-সম্পাদকের রাজনৈতিক প্রসারতায় ইর্শান্বিত হয়ে তার সুনাম ক্ষুন্ন করার মিশনে নেমেছে। আমরা আটঘরিয়া উপজেলার পক্ষ থেকে ওই মিথ্যা অভিযোগ ও সংবাদের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি।

আজ শনিবার আটঘরিয়া পৌরসভায় এক শালিসী বৈঠকে তা প্রমানিত হয়। এই বৈঠকের সভাপতিত্ব করেন আটঘরিয়া পৌরসভার মেয়র শহিদুল ইসলাম রতন। ঘটনাটি উপজেলা শ্রমিক লীগের সভাপতি বুলবুল আহম্মেদ ও সাধারণ সম্পাদক কামরুল ইসলামকে জড়িত করে মিথ্যা অপবাদ দিয়ে এলাকায় কূৎসা রটনা করা হয়েছে।

উল্লেখ্য ঘটনার বিবরণে জানা গেছে, আটঘরিয়া পৌর এলাকার রোস্তমপুর হাজিপাড়া গ্রামে ২৫ বছর সাংসরিক জীবনে জনৈক ব্যক্তি তার স্ত্রীকে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে ডিভোস প্রদান করেন। এই ঘটনাটি এলাকায় জানাজানি হলে সম্প্রতি উপজেলা শ্রমিক লীগের সভাপতি বুলবুল আহম্মেদ ও সাধারণ সম্পাদক কামরুল ইসলাম এলাকার গন্যমান্য ব্যক্তিদের নিয়ে ডিভোস দেওয়া স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে পূর্ণরায় বিয়ের ব্যবস্থা করেন।

এতেই রোস্তমপুর হাজিপাড়া মহল্লার শেখ মো: শাহাজ উদ্দিনের ছেলে কোরিয়া প্রবাসী শেখ মো: আব্দুর রশিদের সাথে বুলবুল, কামরুল ও এলাকাবাসীর মধ্যে কথাকাটাকাটির ঘটনা ঘটে। এক পর্যায়ে বুলবুল, কামরুলসহ ৭ থেকে ৮জনের নামে ডাকাতির অভিযোগ তোলেন।

এ ঘটনায় ২৭ মে গ্রাম্য শালিস বৈঠক বসে। এই শালিস বৈঠক মুলতবি করে শনিবার (৩০ মে) আটঘরিয়া পৌরসভায় মেয়র শহিদুল ইসলাম রতনের সভাপতিত্বে পৌরসভায় এক শালিসী বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। এই বৈঠকে আটঘরিয়ায় উপজেলা শ্রমিকলীগের সভাপতি-সম্পাদকের বিরুদ্ধে ডাকাতির অভিযোগ মিথ্যা প্রমাণিত হয়েছে।

এ ব্যাপারে রোস্তমপুর হাজিপাড়া মহল্লার শেখ মো: শাহাজ উদ্দিনের ছেলে কোরিয়া প্রবাসী শেখ মো: আব্দুর রশিদ বলেন, আসলে সেদিন কোন ডাকাতির ঘটনা ঘটেনি। তবে তিনি বলেন, তাদের মধ্যে তুচ্ছ ঘটনাটি নিয়ে ভুল বোঝাবুঝির ঘটনা ঘটেছে। এটি মিমাংসা হয়েছে।

এ ব্যাপারে আটঘরিয়া পৌরসভার মেয়র শহিদুল ইসলাম রতন বলেন, বিষয়টি উভয় পক্ষের মধ্যে সমঝোতা করে দেওয়া হয়েছে। আসলে সেদিন যা ঘটেছিলো এটি একটি বিয়ে দেওয়াকে কেন্দ্র করে। শালিসী বৈঠকে অন্যান্যদের মধ্যে সাবেক উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার জহুরুল হক, আওয়ামী লীগ নেতা জাহিদুল ইসলাম মুকুল, যুবলীগ নেতা আহসানউল্লাহ, উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক গোলাম মওলা পান্নুসহ এলাকার গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন।

আরও পড়ুন

Thursday, September 23, 2021

সর্বশেষ