গৃহবধুর ধর্ষন মামলা সিএনজি ড্রাইভার খোরশেদ জেল হাজতে।

লক্ষীপুর জেলা প্রতিনিধিঃ লক্ষীপুরের রামগঞ্জে ধর্ষন মামলায় সিএনজি ড্রাইভার খোরশেদকে জেল হাজতে পাঠিয়েছে পুলিশ। ১৫ সেপ্টম্বর ভোরে রামগঞ্জ থানা পুলিশের এ এস আই জাহিদ হোসেন ধর্ষিতার দায়ের করা নারী ও শিশু নির্যাতনের মামলার ভিত্তিতে বিশেষ অভিযান চালিয়ে পৌরসভা আউগানখিল গ্রাম থেকে তাকে গ্রেফতার করে লক্ষ্মীপুর জেল হাজতে প্রেরন করেছে। ধর্ষক খোরশেদ আলম উপজেলার ৫নং চন্ডিপুর ইউনিয়নের উত্তর চন্ডিপুর বকসী বাড়ির মৃত ছায়েদ বেপারীর লম্পট ছেলে।
স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, সিএনজি ড্রাইভার খোরশেদ আলম আউগানখিল গ্রামের গৃহবধু ২সন্তানের জননীর সাথে সিএনজিতে করে রামগঞ্জে আসা- যাওয়ার পথে পরিচয় হয়। একপর্যায়ে খোরশেদ ওই গৃহবধুর কাছ থেকে মোবাইল নাম্বার নিয়ে প্রায়ই সময় মোবাইলে কথোপথনের একপর্যায়ে খোরশেদর গৃহবধুকে বিয়ের প্রস্তাব দেয়। এরই ফাকে খোরশেদ ৫সেপ্টম্বর সন্ধায় আউগানখিল ধর্শিতার বাড়ির সামনে উপস্থিত হয়ে খোরশেদ ধর্ষিতাকে ফোন দিয়ে সিএনজিতে করে রামগঞ্জে নিয়ে আসে। ওইদিন রাত ৯টা পর্যন্ত এদিক সেদিক ঘোরাঘোরি করে আউগানখিল ধর্ষিতার বড় বোনের বাড়িতে যায়। পরে ধর্ষিতার বড়বোন রান্নাঘরে গেলে এরই সুযোগে লম্পট সিএনজি ড্রাইভার খোরশেদ জোর পূর্বক গৃহবধুকে ধর্ষন করে। এসময় ধর্ষিতা চিৎকার করলে বড়বোন এগিয়ে আসলে খোরশেদ দৌড়ে পালিয়ে যেগে সক্ষম হয়।
এ ব্যাপারে জানতে চাইলে ধর্ষক খোরশেদ ও ধর্ষিতার পরিবারের লোকজন গনমাধ্যম কর্মীদের সাথে কথা বলতে অপারগতা প্রকাশ করেন।
রামগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোহাম্মদ আনোয়ার হোসেন জানান, ধর্ষিতার এজহারের ভিত্তিতে গৃবধুর ডাক্তারী পরীক্ষা-নিরীক্ষা শেষে বাড়িতে পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছে। এছাড়াও ধর্ষক খোরশেদ আলমকে গ্রেফতার করে লক্ষ্মীপুর জেল হাজতে প্রেরন করা হয়েছে।

আরও পড়ুন

Sunday, November 28, 2021

সর্বশেষ