বাংলাদেশ বদলে গেছে : ভোলায় তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী। 

ভোলা প্রতিনিধি ॥ বাংলাদেশ বদলে গেছে বলে মন্তব্য করেছেন বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ এমপি। বদলে যাওয়া ডিজিটাল বাংলাদেশ ও সরকারের উন্নয়নের চিত্র তুলে ধরে হাসান মাহমুদ বলেন, আগে মানুষ সরকারী চাকুরীতে দরখাস্ত করতে হলে সারাদিন চলে যেত, কিন্তু এখন আর সেই ভোগান্তিতে পড়তে হয় না। ভোলার চরফ্যাশন উপজেলার চর কুকরী-মুকরী, সহ দেশের সব জায়গা থেকে মোবাইল ফোনের মাধ্যমে দরখাস্ত করতে পারে। বিশ্ববিদ্যালয়ে দরখাস্তের মাধ্যমে ভর্তি হতে পারে। ডিজিটাইলাইজেশন হওয়ার কারণেই এখন দূর-দূরান্ত থেকে শিক্ষার্থীরা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়সহ অন্যান্য বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হতে পারে।
তিনি আরো বলেন, একজন কৃষক তার ক্ষেতে পোকার ছবি তুলে ব্লক সুপারভাইজারকে ফোন করে, কিংবা উপজেলা কৃষি অফিসারকে ফোন করে। বলে স্যার আমার ক্ষেত্রে এই পোকা লাগছে, তার ছবি আপনাকে পাঠাইলাম। তখন ব্লক সুপারভাইজার বা কৃষি অফিসার বলে তুমি এই ঔষধ-টা দাও। এটাই হলো ডিজিটাল বাংলাদেশ।
মন্ত্রী বলেন, বিদেশ থেকে যখন কেউ ফোন করে তখন পরিবারের সবাই কথা বলতে চায়। ভিডিও কলের মাধ্যমে সকলেই কুশল বিনিময় করে। এটা আগে সম্ভব ছিল না। সম্ভব হয়েছে ডিজিটাল বাংলাদেশ এর কারণে। আজকে বাংলাদেশ বদলে গেছে, মানুষের চেহারা পাল্টে গেছে। আগে শোনা যেত সন্ধ্যার পরে সন্তানরা বলত মা আমাকে একটু বাসি ভাত দাও। কিন্তু এখন আর শহর, নগর, অলি-গলি, গ্রাম-গ্রামান্তরে সেটা শোনা যায় না। আজকে খালি পায়ের মানুষ দেখা যায় না। ছেড়া কাপড় পড়া মানুষ দেখা যায় না। কুড়ে ঘর খুজে পাওয়া যায় না। এটাই হচ্ছে বদলে যাওয়া বাংলাদেশ। এই বদলে যাওয়া কোন জাদুর কারণে হয় নাই; হয়েছে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কারণে।
শনিবার (১৮ সেপ্টেম্বর) বিকালে ভোলার চরফ্যাশনে বজ্রগোপাল টাউন হলে সাবেক জাতীয় সংসদ সদস্য ও প্রাজ্ঞ রাজনীতিবিদ অধ্যক্ষ এম এম নজরুল ইমলামের ২৯ তম মৃত্যুবাষিকীর আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। অধ্যক্ষ নজরুল ইসলাম ফাউন্ডেশন এ সভার আয়োজন করে।
হাসান মাহমুদ বলেন, বাংলাদেশে রাত ১২ টার পর যারা টেলিভিশনের পর্দা গরম করে আর গরম গরম কথা বলে তাদের দিয়ে তত্বাবধায়ক সরকার কখনও হবে না। সংবিধান অনুযায়ী নির্বাচন কালিন সময়ে আওয়ামীলীগ সরকারই তত্বাবধায়ক সরকারের দায়িত্ব পালন করবে। নির্বাচন কমিশনের অধীনে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। মিথ্যা স্বপ্ন দেখে কোন লাভ হবে না।
তিনি আরো বলেন, বিএনপি সিরিজ মিটিং করছে ৩ দিন ধরে। মিটিংয়ের মধ্যে বক্তারা বলেন, আওয়ামীলীগ সরকারের অধীনে নাকি কোন নির্বাচনে যাবে না। আমি বলতে চাই, নির্বাচন কোন সরকারের অধীনে হয় না। নির্বাচন হয় নির্বাচন কমিশনের অধীনে। সব ক্ষমতা নির্বাচন কমিশনের হাতে চলে য়ায়। আর তত্বাবধায়ক সরকার, সেই স্বপ্ন দেখে আর লাভ নাই।
তিনি বলেন, নির্বাচন সময়ে ঢাকা থেকে বিভিন্ন অতিথি পাখি আসেন এলাকায় নির্বাচন করার জন্য। তারা এসে বলেন আপনারা আমাকে নৌকা কিংবা ধানের শীষে ভোট দেন। তখন বলতে হবে আমরা কোন অতিথি পাখিকে ভোট দেব না। আমরা তাকে ভোট দেব যাকে সুখে, দুঃখে কাছে পেয়েছি।
বিশেষ অতিথি ছিলেন ভোলা-৪ আসনের সংসদ সদস্য যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ের সংসদীয় কমিটির সভাপতি আবদুল্লাহ আল ইসলাম জ্যাকব। সম্মানিত অতিথি ছিলেন জেলা প্রশাসক মো: তৌফিক-ই-লাহী চৌধুরী, পুলিশ সুপার সরকার মোহাম্মদ কায়সার। আমন্ত্রিত অতিথি ছিলেন চরফ্যাশন উপজেলা চেয়ারম্যান জয়নাল আবেদিন আখন, উপজেলা আওয়ামীলীগ সাধারণ সম্পাদক নুরুল ইসলাম ভিপি, পৌর মেয়র মো. মোরশেদ, পৌর আওয়ামীলীগ সাধারণ সম্পাদক মনির আহমেদ শুভ্র প্রমুখ। ফাউন্ডশনের ভাইস চেয়ারম্যান কায়সার আহমেদ দুলাল সভাপতিত্ব করেন।
এর আগে আবদুল্লাহ আল ইসলাম জ্যাকবের বাসভবনে ভোলার গণমাধ্যম কর্মীদের সাথে মন্ত্রী মতবিনিময় করেন। এসময় মন্ত্রী ছাড়াও বাংলার কণ্ঠের সম্পাদক এম. হাবিবুর রহমান, আরটিভি প্রতিনিধি অমিতাভ রায় অপু, চরফ্যাশন প্রেসক্লাব সভাপতি আবুল হাসেম মহাজন, সম্পাদক মনির আহমেদ শুভ্র বক্তব্য রাখেন। এসময় ভোলা ও চরফ্যাশন উপজেলার কর্মরত সাংবাদিকবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। এ সময় প্রধান অতিথি ও বিশেষ অতিথিকে সম্মানরা স্মারক ও ফুলেল শুভেচ্ছা জানানো হয়। বৈরী আবহাওয়ার মধ্যে মন্ত্রী চরফ্যাশনের বিভিন্ন উন্নয়ন কর্মকান্ড পরিদর্শন করেন এবং ভুয়শী প্রশংসা করেন।

ছবি- সংযুক্ত।

আরও পড়ুন

Sunday, November 28, 2021

সর্বশেষ