বরিশালে সন্ত্রাসী সুমন বাহিনীর গ্রেফতারের দাবীতে খেয়াঘাট বাজার কমিটির মানববন্ধন

বরিশাল ব্যুরো চিফ: নগরীর ভাটার খাল এলাকার চাঞ্চল্যকর নাইম শাহ হত্যা মামলার আসামি সন্ত্রাসী সুমন বাহিনীর গ্রেফতারের ও বিচারের দাবীতে মানববন্ধন করেছেন খেয়াঘাট বাজার কমিটির নেতৃবৃন্দ। আজ বুধবার, সকাল সাড়ে ১১ টার দিকে খেয়াঘাট বাজার এলাকায় সন্ত্রাসী সুমন বাহিনীর গ্রেফতার ও বিচারের দাবীতে মানববন্ধন করেন খেয়াঘাট বাজার কমিটির নেতৃবৃন্দরা।

জানা গেছে, নগরীর ১০ নম্বর ওয়ার্ডের ভাটারখাল কলোনীতে পূর্ব শত্রুতাকে কেন্দ্র করে খেয়াঘাট বাজার কমিটির সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক ও ইজারাদার সাদ্দাম শাহ ও তার পরিবারের উপর হামলা চালায় সন্ত্রাসী কবুতর সুমন বাহিনী। হামলার ঘটনায় নারীসহ ৫ জন আহতের খবর পাওয়া গেছে। গত ১৪ অক্টোবর, বৃহস্পতিবার রাত ৮টার দিকে ভাটারখাল কলোনীর বাসিন্দা সাদ্দাম শাহ ও তার পরিবারের লোকজনের উপর সন্ত্রাসী কবুতর সুমন ও তার শশুর লেবার সরদার আলমগীর ও তার ছেলে রুবেল, মাদক সম্রাজ্ঞী রিনা ও তার স্বামী আজাহার, ছেলে কিশোর গ্যাং’র সদস্য শিপন সহ ১৫-২০জন অস্ত্রধারী আকস্মিক ধারালো অস্ত্র নিয়ে হামলা চালিয়েছে বলে জানা গেছে।
তবে এদের মধ্যে গুরুতর আহত সাদ্দাম শাহ কে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকায় প্রেরণ করা হয়েছে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, সংঘাতের একপর্যায়ে সাদ্দাম শাহ’র বাসায় হামলা চালিয়ে ভাংচুর করেছেন বলে তাদের অভিযোগ। এসময় নারীদের মারধর করা হয়। এতে সাদ্দাম শাহ’র পরিবারের ৫ জন আহত হয়েছেন। এসময় হালিম শাহ’র ছেলে সাদ্দামকে কুপিয়ে জখম করে প্রতিপক্ষরা। রক্তাক্ত সাদ্দামসহ সকলকে উদ্ধার করে শেবাচিম হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। খবর পেয়ে বরিশাল মেট্রোপলিটন পুলিশের উচ্চপদস্থ এক কর্মকর্তাসহ কোতয়ালি থানা পুলিশের ওসি ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। তবে এই ঘটনায় পুলিশ কাউকে গ্রেপ্তার করতে পারেনি।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক মাহিন্দ্রা চালক জানান, সন্ত্রাসী সুমন বরিশাল জেলা অটো টেম্পু,অটোরিক্সা,
মিশুক, বেবিটেক্সি চালক শ্রমিক ইউনিয়নের সদস্য হওয়ায় লঞ্চঘাট থেকে প্রতিদিন ভোর রাতে যে সকল মাহিন্দ্রা লঞ্চের যাত্রি নিয়ে বরিশালের বিভিন্ন উপজেলায় ছেড়ে যায়, ওই সব মাহিন্দ্রা চালকের কাছ থেকে জোরপূর্বক প্রতিমাসে ৩ হাজার টাকা করে মাসোয়ারা আদায় করেন। এছাড়াও যে সব রুটে যাত্রি বেশি হয়ে থাকে ওই সব রুটে সিরিয়ালের জন্য এক কালীন প্রতি মাহিন্দ্র থেকে ১৫-২০ হাজার টাকা দিতে হয় কবুতর সুমন কে। যে সব মাহিন্দ্র চালক টাকা দিতে রাজি না হয় তাদের কে মারধর করে সুমন ও তার সহযোগীরা। একটি মোবাইল রেকর্ডিং এর মাধ্যমে জানা যায় কবুতর সুমন এক চালকের কাছে বানাড়ীপারা রুটে সিরিয়ালের জন্য ১৫ হাজার টাকা দাবি করে কিন্তু মাহিন্দ্র চালক টাকা দিতে অপারগতা প্রকাশ করলে সেই চালককে হুমকি দিয়ে বলেন তোকে ৭ দিন সময় দিছিলাম কিন্তু ২০ দিন হয়ে গেছে তুই টাকা না দিলে লঞ্চঘাট এলাকায় গাড়ি চালাতে পারবি না বলে হুমকি দেয়।

কবুতর সুমনের বিরুদ্ধে সন্ত্রাসী কর্মকান্ড সহ রয়েছে হত্যা মামলা ও একাধিক মাদক মামলা।

আরও পড়ুন

Sunday, November 28, 2021

সর্বশেষ