রামগতিতে ধর্ষণের শিকার গৃহকর্মীকে জোরপূর্বক গর্ভপাতের চেষ্টা।

রামগতি (লক্ষীপুর) প্রতিনিধি : লক্ষীপুরের রামগতিতে ধর্ষণের শিকার গৃহকর্মীকে জোরপূর্বক গর্ভপাত করানোর চেষ্টার অভিযোগ
উঠেছে।
জানা যায়, উপজেলার চর গাজী ইউনিয়নের সম্ভ্রান্ত ব্যক্তি ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি মাহফুজুল হক শের আলী মিয়ার ঔরশজাত কূ-
সন্তান ফেরদৌস তাদের গৃহকর্মী এবং আশ্রিত গরীব ঘরের মেয়েকে নানান প্রলোভন ও পারিবারিক প্রভাব প্রতিপত্তির ভয়ভীতি
দেখিয়ে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে। তারপর নিয়মিত মেলামেশার ফলে মেয়েটি এক পর্যায়ে গর্ভবতী হয়ে পড়ে।
বিষয়টি ধামাচাপা দেয়ার মানষে রামগতির বিভিন্ন ক্লিনিকে এবং নোয়াখালীর হাসপাতালে নিয়ে ফারজানাকে কৌশলে তার মতের
বাইরে জোরপূর্বক গর্ভপাত করানোর চেষ্টা করা হয়। এতে করে এলাকায় বিষয়টি জানাজানি হয়ে গেলে শের আলী মিয়া ও তার পরিবারের লোকজন গৃহকর্মীর পরিবারের উপর চাপ সৃষ্টি করে গর্ভবতী ফারজানাকে তার ভাইকে দিয়ে চট্রগ্রামে মা বাবার কাছে পাঠিয়ে
দেয়া হয়।
ফারজানা চর গাজী ইউনিয়নের ৩ নং ওয়ার্ডের নুর উদ্দিনের মেয়ে।
ফারজানার বাবা নুর উদ্দিন জানান, আমি ন্যয় বিচার চাই। পাষন্ড
ফেরদৌস আমার মেয়ের জীবন ধ্বংশ করে দিয়েছে। ন্যয় বিচারের স্বার্থে মামলা দায়েরের প্রস্তুতি নিচ্ছি।
এ বিষয়ে ফেরদৌসের কাছে জানতে চাইলে সে বলে, আমি যে এ কাজ করেছি তার কোন প্রমাণ নেই। কারো কথায় আমার মানসম্মান
নষ্ট করবেননা।
ফেরদৌসের বাবা শের আলী মিয়া জানান, আমি অসুস্থ ছিলাম দ্বীর্ঘদিন বিষয়টি আমি শুনি নাই।
এ বিষয়ে থানা অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ সোলাইমান জানান, অভিযোগ পেলে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

আরও পড়ুন

Thursday, January 27, 2022

সর্বশেষ