স্বতন্ত্রের কর্মীদের এলাকা ছাড়ার হুমকি, নৌকার প্রার্থীকে নোটিশ আবুল কাশেম জেহাদী

মোঃ আরিফ হোসেন
লক্ষ্মীপুর জেলা প্রতিনিধি

লক্ষ্মীপুরের ইউপি নির্বাচনে নৌকার এক প্রার্থীর বিরুদ্ধে স্বতন্ত্রের কর্মীদের এলাকা ছাড়ার হুমকি দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে। এ জন্য ওই প্রার্থীকে কারণ দর্শানো নোটিশ দিয়েছেন ওই ইউনিয়নের দায়িত্বপ্রাপ্ত রিটার্নিং কর্মকর্তা মো. সালেহ উদ্দিন।

শুক্রবার (২৪ ডিসেম্বর) স্বতন্ত্র প্রার্থীর লিখিত অভিযোগের ভিত্তিতে এ কারণ দর্শানোর নোটিশ দেওয়া হয়।

অভিযুক্ত ব্যক্তি হলেন- সদর উপজেলার বশিকপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান প্রার্থী ও বর্তমান চেয়ারম্যান আবুল কাশেম জেহাদী।

অভিযোগকারী হলেন- স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী (আনারস প্রতীক) মাহফুজুর রহমান।
এ বিষয়ে রিটার্নিং কর্মকর্তা সালেহ উদ্দিন বলেন, ২৪ ঘণ্টার মধ্যে লিখিতভাবে নোটিশের জবাব দিতে বলা হয়েছে নৌকার ওই প্রার্থীকে।

জানা গেছে, বশিকপুর ইউনিয়নের স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী হিসেবে আনারস প্রতীকে প্রার্থী হয়েছেন মাহফুজুর রহমান। শুক্রবার সকাল ১০ টার দিকে ১০-১৫টি মোটরসাইকেল যোগে ইউনিয়নের শেরপুর বাজারে এসে তার কর্মী-সমর্থক সাগরকে হুমকি দেন নৌকা প্রতীকের প্রার্থী কাশেম জেহাদী।এছাড়া পোদ্দার বাজারে প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীর ভগ্নিপতির গায়ে হাত তুলে নির্বাচনী অফিসে তালা লাগিয়ে স্বতন্ত্রের কর্মীদের আজকের মধ্যে এলাকা ছাড়ার নির্দেশ দিয়েছেন তিনি। যা ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনের আচরণবিধি লঙ্ঘন।

কারণ দর্শানো নেটিশে নৌকার প্রার্থীর বিরুদ্ধে কেন আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে না, তা আগামী ২৪ ঘণ্টার মধ্যে লিখিতভাবে জানাতে চাওয়া হয়।

আবুল কাশেম জেহাদীর বিরুদ্ধে এলাকায় সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড এবং প্রভাব বিস্তারের অভিযোগ অনেক দিন ধরেই রয়েছে। তিনি এলাকার শীর্ষ সন্ত্রাসী ছিলেন। তার একটি সন্ত্রাসী বাহিনীও রয়েছে। গত ১০ বছর থেকে তিনি চেয়ারম্যানে দায়িত্ব পালন করে আসছেন। এবারও নৌকা প্রতীক পেয়েছেন।

তার বিরুদ্ধে বেশ কয়েকটি হত্যা মামলা হলেও একটি ছাড়া বাকী মামলাগুলো থেকে রেহাই পেয়েছেন তিনি। বর্তমানে তার বিরুদ্ধে দত্তপাড়া ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান নুর হোসেন শামীম হত্যা মামলা রয়েছে। এছাড়া এলাকায় চাঁদাবাজি, নির্যাতনসহ বহু অভিযোগ ছিল তার বিরুদ্ধে। এখনও জেহাদী সে প্রভাব বিস্তার করে চলছেন বলে প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীরা অভিযোগ করেছেন।

এ ব্যাপারে জানতে আবুল কাশেম জেহাদীর মোবাইলে একাধিবার ফোন দিলেও তিনি রিসিভ না করায় বক্তব্য নেওয়া সম্ভব হয়নি।

প্রসঙ্গত, আগামী ২৬ ডিসেম্বর লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলার ১৫ ইউনিয়নে ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে।

আরও পড়ুন

Friday, October 7, 2022

সর্বশেষ