জলঢাকার শিমুলবাড়ীতে সমাজ সেবায় এগিয়ে ইউপি সদস্য রমজান আলী।

মোঃমশিয়ার রহমান,নীলফামারী প্রতিনিধিঃ

সমাজে এমনও হাজার হাজার মানুষ আছে,-যাদের প্রচুর অর্থ-সম্পদ রয়েছে কিন্তু নিজেকে পরার্থে বিলিয়ে দিতে নারাজ। অন্যের কল্যাণে নিজেকে নিবেদিত রাখাটা যেনতেন ব্যাপার নয়, পুরোটাই ত্যাগের।তিনি সব সময় অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়ানোর নিরন্তর চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে রমজান আলী।অনেক ধনবান মানুষ থাকলেও গরীবকে ভালোবেসে বুকে টেনে নেওয়ার মতো মানুষ কিন্তু হাতে গোনা।তাদের মধ্যে তিনি একজন। তাদের বিপদে আপদে সব সময় তার অবস্থান থাকে সবার আগে।তিনি মানুষকে বুঝিয়ে দিয়েছেন যিনি ভালবাসতে জানেন তাকেই ভালবাসতে হবে।জননন্দিত এই মানুষটি মোঃরমজান আলী(৫০)পিতা মৃতঃছাব্বা মামুদ, মাতা মোছাঃ জবেদা বেগম,৭ ভাই বোনের মধ্যে তিনি সবার ছোট।ব্যক্তি জিবনে তিনি পাচঁ ছেলে এক কন্যা সন্তানের জনক। গ্রামের বাড়ী নীলফামারী জেলার জলঢাকা উপজেলার শিমুলবাড়ী ইউনিয়নের ৬নং ওয়ার্ডের ঘুঘুমারী গ্রামে। তিনি পেশায় একজন ইউপি সদস্য ও জনপ্রতিনিধি। গত২০২১ সালের ২৮শে নভেম্বর বিপুল ভোটের ব্যবধানে ইউপি সদস্য নির্বাচিত হন।তিনি ইউপি সদস্য নির্বাচিত হওয়ার আগে থেকে তার ওয়ার্ডের বিভিন্ন উন্নায়ন ও সামাজিক উন্নায়ন মূলক কাজ করে যাচ্ছন, মসজিদ, মন্দির,রাস্তাঘাট সংস্কার, ঈদগাহ মাঠ, বাল্য বিবাহ প্রতিরোধ, মাদক, সন্ত্রাস নির্মূল, ব্রীজ কালভার্টসহ বিভিন্ন ধর্মীয় উপাসনালয়ে দান নিজ অর্থায়নে ব্যাপক ভূমিকা রেখেছেন। গত বছরের শেষের দিকে তিনি তার নিজ অর্থায়নে ৬নং ওয়ার্ডের বিভিন্ন রাস্তায় মাটি ভরাট করে চলাচলে উপযোগী করে দেন। ২৬ফেব্রুয়ারি দুপুরে সরেজমিনে গিয়ে দেখাযায়, তার নির্বাচনী ওয়ার্ডে নিজ অর্থায়নে ব্যাপক উন্নয় মুলক কাজ করছেন।এবিষয় কথা হয় এলাকাবাসী ৭৫বছরের বৃদ্ধা আব্দুল গফুরের সাথে তিনি বলেন হামা কি কমো বাহে,হামার বয়সে ম্যালা মেম্বর দেখিনো রজমানের মত কাওয়ে করে নাই।সে মেম্বর হওয়ার আগে ম্যালা কাজ করেছে, মসজিত, রাস্তায় ভাঙ্গা টলি দিয়া মাটি দেয়ছে মেম্বর।আরো কথা হয় লক্ষীমারী সরঃপ্রাঃবিদ্যায়ের সহকারী শিক্ষক বাবলুর রশিদ, লাইয়ম মিয়া সহ অনেকের সাথে তারা বলেন রমজান মেম্বার নিজ অর্থদিয়ে অনেক করেছে।আরো কথা হয় লক্ষীমারী সরঃপ্রাঃবিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক বাবলুর রশিদ,লাইয়ম মিয়া সহ অনেকের সাথে তারা বলেন মেম্বার আগে থেকে তিনি মসজিদে সিমেন্ট নগদ টাকা, বৃষ্টির কারনে রাস্তা ভেঙ্গে গেছ, চলাচল করা মুষকিল হয়ে পড়ছে,সেখান টলি দিয়ে বালু দিয়ে রাস্তায় চলাচলের উপযোগী করা।এপ্রতিবেদকের একান্ত সাক্ষাতকারে সফল ইউপি সদস্য রমজান আলী বলেন আমি একজন গ্রামের মানুষ তাই তাদের দুঃখ কষ্টটা বুঝি।ইউপি সদস্য নির্চাচিত হওয়ার আগে জনগনকে অনেক কথা দিয়েছি।নির্বাচিত হওয়ার পরে সকরারি বরাদ্দ না পাওয়ায় নিজ অর্থায়নের যতটুকু পারি জনগনকে দেওয়া কথা রাখার চেষ্টা করছি। যতদিন আল্লাহ আমাকে বেচেঁ রাখবে এভাবে মানুষের সেবা করে যাব।

আরও পড়ুন

Thursday, October 6, 2022

সর্বশেষ