ভোলায় ভারী বৃষ্টিপাত, প্লাবিত নিন্মাঞ্চল

ভোলা প্রতিনিধি ॥ লঘু চাপ ও পূর্ণিমার প্রভাবে দ্বীপজেলা ভোলায় সকাল থেকেই বৈরী আবহাওয়া বিরাজ করছে। এ কারণে ভারী বৃষ্টিপাত হচ্ছে। সোমবার (১২ সেপ্টেম্বর) দুপুর ৩টা পর্যন্ত জেলায় ৩৯ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত হয়েছে। এদিকে টানা চারদিন ধরে মেঘনার পানি বিপৎসীমার ওপরে প্রবাহিত হচ্ছে। গত ২৪ ঘণ্টায় মেঘনার পানি বিপৎসীমার ৭৭ সেন্টিমিটার ওপরে ছিল। এতে উপকূলের ২০টি গ্রাম প্লাবিত হয়েছে। দুর্ভোগে পড়েছেন হাজারো মানুষ। পানিতে তলিয়ে গেছে ঘরবাড়ি, রাস্তাঘাটসহ বিস্তীর্ণ জনপদ। এছাড়াও ডুবে গেছে ইলিশা ফেরিঘাট।
এগিকে সাগর ও নদী উত্তাল থাকায় মাছ ধরার সব নৌকা ও ট্রলারকে নিরাপদে আনতে প্রচার-প্রচারনা চালিয়ে যাচ্ছে কোস্টগার্ড। রোববার থেকে কোস্টগার্ডের বেশ কয়েকটি টিম এ প্রচারনা চালাচ্ছে। কোস্টগার্ড জানিয়েছে, সোমবার চতুর্থদিনের মত উপকূলের জেলেদের নিরাপদে আনতে প্রচারনা চালাচ্ছে। অনেক জেলেই তীরে ফিরে এসেছেন। নদী উত্তাল থাকালেও নৌযান চলাচলে তেমন সতর্কতা সংকেত নেই। নৌযান চলাচল স্বাভাবিক রয়েছে। অতি জোয়ারে তলিয়ে গেছে ভোলার ইলিশা ফেরিঘাট। এতে দুর্ভোগে পড়েছেন যাত্রী ও পরিবহন শ্রমিকরা।
উপকূলের এমন দুর্যোগপূর্ণ পরিস্থিতি আরও দুই/তিন দিন অব্যাহত থাকতে পারে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া অফিসের অবজারভার মো. মাহবুবুর রহমান। তিনি বলেন, বিকেলের মধ্যে লঘু চাপের প্রভাব কেটে গেলেও ভারী বর্ষণ অব্যাহত থাকবে। ভোলা পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী হাসানুজ্জামান বলেন, পানি বাড়লেও বাঁধের ক্ষয়ক্ষতি হয়নি, তবে নিচু এলাকা প্লাবিত হয়েছে।

আরও পড়ুন

Friday, September 23, 2022

সর্বশেষ