লক্ষ্মীপুর হাসন্দি উচ্চ বিদ্যালয় নির্বাচনে জালিয়াতির সত্যতা পেয়েছে তদন্ত কমিটি

লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধি: লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলার হাসন্দি উচ্চ বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির নির্বাচনে অনিয়ম ও জাল জালিয়াতির ঘটনায় সত্যতা পেয়েছে সংশ্লিষ্ট কমিটি। ১৭ সেপ্টেম্বর (শনিবার) বিকেলে সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার নির্দেশে উপজেলা যুব উন্নয়ন কর্মকর্তা সালেহ আহমদ এই তদন্ত কাজ শেষ করেন।
একটি সূত্র জানিয়েছে নির্বাচন সাজানো ও পাঁতানো করার ঘটনা সত্যতা পাওয়া গেছে। বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির আহবায়ক মোক্তার হোসেন ও প্রধান শিক্ষক আবদুল মান্নান যোগ-সাজসে নির্বাচন পরিচালনা নিয়ে বিভিন্ন ধরনের অনিয়মের চিত্র উঠে আসে। এতে বিদ্যালয়ের শিক্ষক, বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সাবেক সদস্যরা এবং বর্তমান প্রার্থীদের অনেকে স্বাক্ষ্য প্রদান করেন। এ ছাড়া তদন্ত খবরে স্থানীয় লোকজন এসে জড়ো হয় তদন্ত কর্মকর্তার সামনে তারা বিদ্যালয়ের অনিয়ম দূর্নীতি ও নির্বাচন নিয়ে জাল জালিয়াতির ঘটনায় বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ও পরিচালনা কমিটির আহবায়ক মোক্তার হোসেনের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহনের দাবী জানান।

অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, হাসন্দি উচ্চ বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির নির্বাচন আগামী ২১ সেপ্টেম্বর ঘোষণা করে কর্তৃপক্ষ। চূড়ান্ত ভোটার তালিকা প্রকাশ করে গত ১৪/০৮/২০২২ ইং। এ দিকে নির্বাচনে অভিভাবক সদস্য পদে মো: মামুন হোসেন, মো: আবদুল্লা আল মামুন ৫ হাজার টাকা দিয়ে মনোয়নপত্র ক্রয় করেন। কিন্তু বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আবদুল মান্নান ও আহবায়ক কমিটির সভাপতি মো: মুক্তার হোসেন যোগ-সাজসে চূড়ান্ত ভোটার তালিকা থেকে জাল জালিয়াতির মাধ্যমে মো: মামুন ও আবদুল্লা আল মামুনের নাম বাদ দিয়ে তাদের স্ত্রীদের নাম অন্তর্ভুক্ত করে। প্রিসাইডিং অফিসার ও উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা আবু তালেবের নিকট জমা দেন। পরে প্রিসাইডিং অফিসার গত ১০/০৯/২০২২ ইং তারিখে ওই প্রার্থীদের মনোনয়নপত্র বাতিল করে। তড়িঘড়ি করে নির্বাচনের প্রস্ততি নেয়। পরে বিষয়টি জানতে পেরে প্রার্থী মামুন হোসেন ও আবদুল্লা আল মামুন বাদী হয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বরাবর গত ১০/০৯/২০২২ ইং একটি অভিযোগ দায়ের করেন।
উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো: ইমরান হোসেন লিখিত আদেশে নির্বাচন স্থগিত করতে প্রিসাইডিং কর্মকর্তা ও উপজেলা মাধ্যমিক অফিসার আবু তালেব কে নির্দেশ দেন। এ ছাড়া পৃথক ভাবে নির্বাচনের অনিয়ম ও জাল জালিয়াতির ঘটনায় তদন্ত করে ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য উপজেলা যুব উন্নয়ন কর্মকর্তা মো: সালেহ আহমদ কে নির্দেশ প্রদান করেন।

অভিযোগের ব্যাপারে জানতে চাইলে হাসন্দি উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আবদুল মান্নান বলেন নির্বাচন বিধি মালা অনুযায়ী করা হচ্ছে। চূড়ান্ত ভোটার তালিকা প্রার্থীর নাম কর্তনের বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি কোন সঠিক উত্তর দিতে পারেনি।
তবে উপজেলা যুব উন্নয়ন কর্মকর্তা সালেহ উদ্দিন জানান তিনি বিদ্যালয়ের অনিয়মের বিষয়ে তদন্ত করা হয়েছে। এতে বেশ কিছু অনিয়ম পাওয়া গেছে। তদন্ত রিপোর্ট উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বরাবর প্রেরণ করা হবে। পরবর্তী নির্বাহী কর্মকর্তা মহোদয় ব্যবস্থা গ্রহন করবেন।

আরও পড়ুন

Friday, October 7, 2022

সর্বশেষ